হোম / অনলাইনেই শনাক্ত করা যাবে ডুপ্লিকেট প্যান কার্ডের আবেদন ।
ভাগ করে নিন

অনলাইনেই শনাক্ত করা যাবে ডুপ্লিকেট প্যান কার্ডের আবেদন ।

করফাঁকি আটকানোর উদ্যোগ৷

নকল প্যান কার্ডের দৌরাত্ম্য রুখতে নয়া প্রযুক্তির দিশা পেয়েছে আয়কর দন্তর৷ এই নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করে নকল প্যান কার্ড খুঁজে বের করার পাশাপাশি সেটি নষ্ট করতে পারবেন কর দন্তরের আধিকারিকরা৷ দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর আয়কর দন্তর এই প্রযুক্তির সন্ধান পেয়েছে৷ ইনকাম ট্যাক্স বিজনেস অ্যাপ্লিকেশন -পার্মানেন্ট অ্যাকাউন্ট নম্বর নামের এই ইলেকট্রনিক প্ল্যাটফর্ম কর দন্তরের আধিকারিকদের পাশাপাশি প্যান কার্ড ইস্যুকারী সংস্থাগুলিকেও নকল বা ডুপ্লিকেট প্যান কার্ড খুঁজে বের করতে সাহায্য করবে৷ প্যান কার্ডের নতুন আবেদন জমা পড়ার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট গ্রাহক বা সংস্থার নামে ইতিমধ্যেই প্যান কার্ড ইস্যু করা হয়েছে কিনা এবং হয়ে থাকলে আয়কর দন্তরের ইস্যু করা ইউনিক আইডেন্টিটি নম্বর প্যান কার্ড ইস্যুকারী সংস্থার কাছে পৌঁছে যাবে এই অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে৷

আয়কর দন্তরের এক শীর্ষ আধিকারিক জানান, ‘আগে দন্তরের আধিকারিকরা নকল প্যান কার্ড হাতে কলমে খুঁজে বের করার চেষ্টা করতেন৷ ওই প্রক্রিয়ায় নকল প্যান খুঁজে পাওয়া দুষ্কর ছিল৷ নকল বা ডুপ্লিকেট প্যান কার্ড খুঁজে বের করায় নতুন ইলেকট্রনিক প্রক্রিয়ার জুড়ি মেলা ভার৷’ তবে, পুরোনো প্যান কার্ডের ক্ষেত্রে ম্যানুয়াল প্রক্রিয়াই চালিয়ে যাওয়া উচিত বলে ওই আধিকারিক মনে করেন৷ তিনি বলেন, ‘পুরোনো ব্যবস্থায় এ ধরনের খুব বেশি ঘটনা খুঁজে পাওয়া যাবে না৷ যখনই নকল বা ডুপ্লিকেট প্যান কার্ডের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে তা সিস্টেম থেকে মুছে ফেলা হয়েছে৷’কোনও ব্যক্তি বা সংস্থা যাতে দু’টি প্যান কার্ডের আড়ালে কর ফাঁকি দিতে না পারে তার জন্য দীর্ঘ দিন ধরেই একটি উন্নত প্রযুক্তির খোঁজ চালাচ্ছিল আয়কর দন্তর৷ এর আগে কর ফাঁকি এবং কালো টাকার তদন্তে নেমে ডুপ্লিকেট বা নকল প্যান কার্ড ব্যবহারের বহু নিদর্শন পান আয়কর আধিকারিকরা৷ নতুন প্রক্রিয়ায় ডুপ্লিকেট প্যান কার্ডের যাবতীয় তথ্য ও ওই কার্ড চিহ্নিত করা সহজ হবে৷ জানা যাবে, ওই ডুপ্লিকেট প্যান কার্ড আয়কর দন্তরের কাছে জমা দেওয়া হয়েছে কিনা৷ ফলে, ওই প্যান নম্বর অন্য কোনও ব্যক্তির ব্যবহারের পথও বন্ধ করা যাবে৷ আয়কর দন্তরের ফিল্ড অফিসগুলিতে পাঠানো এক ই -মেলে একথা বলা হয়েছে৷ নতুন পদ্ধতিতে আইটিবিএ -প্যান প্ল্যাটফর্মে ডুপ্লিকেট প্যান কার্ডের সন্ধান পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আবেদনকারীকে সংশ্লিষ্ট অ্যাসেসিং অফিসারের কাছে গিয়ে ডুপ্লিকেট প্যান কার্ড সারেন্ডার করার বিষয়ে জানানো হবে৷ সংশ্লিষ্ট আবেদনকারী তা না করলে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে ওই ডুপ্লিকেট প্যান কার্ড নষ্ট করে দেওয়া হবে৷ সাম্প্রতিক তথ্য অনুযায়ী, গোটা দেশে ২৪ .৩৭ কোটি রেজিস্টার্ড প্যান কার্ড গ্রাহক রয়েছেন৷ কিন্ত্ত , এর মধ্যে একাধিক প্যান কার্ড রয়েছে এমন ব্যক্তি বা সংস্থার সংখ্যা সঠিক জানা যায়নি৷

সূত্র ঃ এই সময় , ২১শে মার্চ ২০১৬

Back to top