হোম / আজ থেকে কার্যকর রিয়েল এস্টেট বিল
ভাগ করে নিন

আজ থেকে কার্যকর রিয়েল এস্টেট বিল

মে মাসের প্রথম দিন থেকেই সারা দেশে রিয়েল এস্টেট আইন চালু হয়ে যাচ্ছে৷

নয়াদিল্লিআট বছরের চেষ্টা অবশেষে সফল হতে চলেছে , মে মাসের প্রথম দিন থেকেই সারা দেশে রিয়েল এস্টেট আইন চালু হয়ে যাচ্ছে৷ তবে এখন আংশিক ভাবে এই আইন চালু হবে৷ মোট ৯২টি ধারার মধ্যে ৬৯টি ধারা ১ মে থেকে চালু হচ্ছে৷ বাকিগুলি না হওয়ার কারণ হল, প্রথমত আগামী ছ-মাসের মধ্যে প্রতিটি রাজ্য সরকারকে এই আইন অনুসারে রুল তৈরি করতে হবে৷ আর এক বছরের মধ্যে রেগুলেটরি অথরিটি গঠন করতে হবে৷ আসলে এই আইনে বলা হয়েছে , প্রমোটার ও ডেভেলপাররা তাঁদের প্রতিটি আবাসন প্রকল্প রেগুলেটরি অথরিটির কাছে নথিভুক্ত করবেন , যাবতীয় পরিকল্পনা জমা দেবেন , কোন শর্তে ফ্ল্যাট বিক্রি করা হচ্ছে সেটাও জানাবেন৷ এককথায় তাঁদের রেগুলেটরি অথরিটির অনুমোদন নিতে হবে৷ এরপর ক্রেতাদের দেওয়া প্রতিশ্রীতি না মানলে প্রমোটার ও ডেভেলপারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যাবে৷ ক্রেতাদেরও সব কথা স্পষ্ট জানাতে হবে৷ বাড়ির যে হিসাব ও জিনিস দেওয়ার কথা , তা সবকিছু ক্রেতাদের দিতে হবে৷ কোনও অভিযোগ থাকলে রেগুলেটরি অথরিটি তার বিচার করবে৷ যে ২৩টি ধারা এখন চালু হচ্ছে না , সেগুলির মধ্যে রয়েছে , প্রমোটারদের দায়িত্ব ও কী করে কাজ করবে তার বিষয়টি , ক্রেতাদের অধিকার ও কর্তব্য , রেগুলেটরি কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিটি প্রকল্প বাধ্যতামূলক ভাবে নথিভুক্ত করা , রেগুলেটরি অথরিটির নির্দেশ কার্যকর করার মতো বিষয়গুলি৷ অর্থাত্, আসল বিষয়গুলিই এখন চালু করা যাচ্ছে না৷ আবার আংশিক ভাবে এই আইনটি চালু না করলে রাজ্য সরকারও রুল বানাতে ও রেগুলেটরি অথরিটি তৈরি করতে পারবে না৷ সে জন্যই আপাতত আইনের ৬৯টি ধারাই চালু করে দেওয়া হচ্ছে৷ রেগুলেটরি অথরিটি গঠন করার জন্য এক বছর সময় পাচ্ছে রাজ্যগুলি৷ ফলে এক বছর পর্যন্ত প্রমোটারদের একটা ছাড় থাকছে৷ রেগুলেটরি অথরিটি গঠন হয়ে গেলে তখন আইনটি পুরোপুরি চালু হবে৷ নগরোন্নয়ন মন্ত্রক বলছে , যত দ্রুত রেগুলেটরি অথরিটি গঠন করা হবে , তত তাড়াতাড়ি ফ্ল্যাট ক্রেতাদের সুবিধা হবে৷ ফলে ১ মে থেকে বল রাজ্যের কোর্টে চলে যাচ্ছে৷ রাজ্য সরকার উদ্যোগী হয়ে দ্রুত রেগুলেটরি অথরিটি গঠন করলে ক্রেতারাও দ্রুত সুরক্ষা পাবেন৷ দিল্লির ক্ষেত্রে নগরোন্নয়ন মন্ত্রকই এই রেগুলেটরি অথরিটি গঠন করবে৷ কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ক্ষেত্রে এই দায়িত্ব প্রশাসনের হাতে থাকবে৷ নগরোন্নয়ন মন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নাইডু ইতিমধ্যেই একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷ সেটা হল , তিনি তাঁর মন্ত্রকের সচিবের নেতৃত্বে একটা কমিটি গঠন করেছেন৷ তাঁরা কী ধরনের রুল তৈরি করা উচিত , তার একটা খসড়া করছে৷ এরপর রেগুলেটরি অথরিটি বানাবার নিয়মকানুনও তাঁরা তৈরি করবেন৷ এগুলো হবে খসড়া আদর্শ রুল৷ রাজ্য সরকারগুলি এটা দেখে তাঁদের মতো করে নিয়ম তৈরি করবেন৷ এতে সময় বাঁচবে এবং রাজ্যের কাজটাও হালকা হবে৷ বেঙ্কাইয়া চাইছেন , যত দ্রুত সম্ভব রাজ্য এই রুল তৈরি করে ফেলুক, তা হলে তাঁর মন্ত্রকও তাড়াতাড়ি বাকি ধারাগুলি চালুর বিজ্ঞন্তি জারি করে দেবে৷ ক্রেতাদের জানাতে হবে ফ্ল্যাটের খুঁটিনাটি৷

সূত্র : এই সময়

Back to top