হোম / গুগল আর্টে বৌদ্ধ শিল্পকলা
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

গুগল আর্টে বৌদ্ধ শিল্পকলা

ভারতীয় জাদুঘরের সাম্প্রতিক কালে সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রদর্শনী ভারতীয় বৌদ্ধ শিল্পকলা জায়গা করে নিল গুগল কালচারাল ইনস্টিটিউটেও৷

ভারতীয় জাদুঘরের সাম্প্রতিক কালে সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রদর্শনী ভারতীয় বৌদ্ধ শিল্পকলা জায়গা করে নিল গুগল কালচারাল ইনস্টিটিউটেও৷ এর ফলে চিন , জাপান , সিঙ্গাপুর , নয়াদিল্লির পরে বর্তমানে কলকাতায় ভারতীয় জাদুঘরে চলতে থাকা প্রদর্শনী এখন চাইলেই দেখা যাবে ঘরে বসেই , এমনকি প্রদর্শনী শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও৷ তবে তার চেয়েও বেশি আকর্ষণীয় হল , জাদুঘরের কয়েকটি বীথির ৩৬০ ডিগ্রি ভিউ৷ এমনটি যে হতে চলেছে , সে কথা গত বছর সেপ্টেম্বর মাসেই জানিয়েছিলেন ভারতীয় জাদুঘরের অধিকর্তা জয়ন্ত সেনগুন্ত৷ তার পরে বেশ কয়েকমাস ধরে জাদুঘরের প্রথম তলের কয়েকটি গ্যালারির ছবি তুলেছে গুগল কালচারাল ইনস্টিটিউট৷ প্রাচীনত্বের নিরিখে কলকাতার ভারতীয় জাদুঘর বিশ্বে নবম , এশিয়ায় প্রাচীনতম বহুমুখী জাদুঘর৷

শিল্পকলা ডিজিটাইডজ করার ব্যাপারে ২০১৩ সালেই ভারতীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকের সঙ্গে সমঝোতা হয় গুগলের৷ নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরে যে ডিজিটাল ইন্ডিয়ার তত্ত্ব দেন , তাতে সামিল হতে গুগল কালচারাল ইনস্টিটিউটের ওপরে বড় ভরসা করে ভারতীয় সংস্কৃতি মন্ত্রক৷ এই প্রকল্পের কথা গত বছর আনুষ্ঠানিক ভাবে ওয়েবসাইটে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় সংস্কৃতিমন্ত্রী মহেশ শর্মাও৷ ভারতীয় জাদুঘরের সঙ্গে গত বছর সেপ্টেম্বরেই সমঝোতা পত্রে (মউ ) সই হয় গুগলের৷ দর্শকদের জন্য প্রতি সোমবার জাদুঘরের সব বীথি বন্ধ থাকে , ওই দিনগুলিকেই জাদুঘরের প্যানোরমিক ছবি তোলার জন্য বেছে নেয় গুগল৷ এ কথা জানিয়েছেন ভারতীয় জাদুঘরের নৃতত্ত্ব বিভাগের প্রধান মিতা চক্রবর্তী৷ তিনিই জাদুঘরের পক্ষে এই প্রকল্প রূপায়ণের দায়িত্বে৷ তিনি জানান , নতুন রূপে সদ্য চালু হওয়া আর্ট গ্যালারিও ভবিষ্যতে গুগল কালচারাল ইনস্টিটিউটে যুক্ত হবে৷ আন্তর্জাতিক জাদুঘর দিবসে গুগলের পক্ষ থেকে ভারতীয় জাদুঘরের ছবিগুলি আপলোড করেছে গুগল , যদিও আগামী ২৫ মে আনুষ্ঠানিক ভাবে এটি চালু করবে ভারতীয় জাদুঘর৷ দর্শকদের তারা দেখাবে কী ভাবে চাইলেই ভারতীয় জাদুঘর দেখা যাবে ঘরে বসেই৷ ৯১টি নিদর্শন নিয়ে প্রদর্শিত ভারতীয় বৌদ্ধ শিল্পকলাকে তিন ভাগে তুলে ধরা হয়েছে দর্শকদের কথা মাথায় রেখেই৷ জাদুঘরের শিক্ষা অধিকর্তা সায়ন ভট্টাচার্য বলেন , ‘ভারহুত , পুরাতত্ত্ব , গান্ধার , মুদ্রা , মিশর , শিবালিক , মানব বিবর্তন , কারুশিল্প ও বস্ত্র বীথি এবং ভারতীয় বৌদ্ধ শিল্পকলা দেখা যাচ্ছে গুগল কালচারাল ইনস্টিটিউটে৷ এর ফলে ভারতীয় জাদুঘরের ব্যান্তি আরও বাড়বে৷ ডিজিটাইজ হওয়ার ফলে নতুন প্রজন্মও তাতে আকৃষ্ট হবে৷ ’ নয়াদিল্লির জাতীয় জাদুঘর নিয়েও একই কাজ করেছে গুগল৷ ভারতীয় জাদুঘর নিয়ে একটি তথ্যচিত্রও তৈরি হয়েছে৷ কাজটি করেছেন পেশাদার তথ্যচিত্রকার নীলাঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পাঁচ মিনিট ১০ সেকেন্ডের এই ছবিতে প্রতিটি গ্যালারির অতি সংক্ষিন্ত পরিচয় দেওয়া হয়েছে৷ এই তথ্যচিত্রও দেখানো হবে দর্শকদের , রবিবারই তা আপলোড করা হয়েছে ইউটিউবে৷ যদিও ‘জাদুঘর’ নামে এই তথ্যচিত্রটি আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন হবে ২৫ জুন , দেখানো হবে ভারতীয় জাদুঘরে৷ নীলাঞ্জন বলেন , ‘নিদর্শনগুলি নড়াচড়া করে না, তাই তা দিয়ে তথ্যচিত্র বানানো বেশ কঠিন কাজ৷ তথ্যচিত্র তৈরির জন্য টাকার সমস্যাও ছিল৷ কিন্ত্ত শেষ পর্যন্ত সেই সমস্যাও মিটেছে৷ জাদুঘরের দর্শকদের জন্য এই তথ্যচিত্রটি তৈরি করতে পারার ব্যাপারে আমি নির্দেশক জয়ন্ত সেনগুন্ত ও শিক্ষা অধিকর্তা সায়ন ভট্টাচার্যের কাছে কৃতজ্ঞ৷

সুত্র:এই সময়

Back to top