হোম / নেট বাজারে পা রিলায়্যান্স রিটেলের
ভাগ করে নিন

নেট বাজারে পা রিলায়্যান্স রিটেলের

জল্পনা চলছিল এক বছর ধরেই। তার অবসান ঘটিয়ে এ বার ই-কমার্স বা নেট বাজারে পা রাখল রিলায়্যান্স রিটেল। ফ্যাশন পোর্টাল অ্যাজিও ডট কমের হাত ধরে মুকেশ অম্বানীর সংস্থাটি দেশি-বিদেশি অনলাইন সংস্থার সঙ্গে পাল্লা দিতে বাজারে নামল।

জল্পনা চলছিল এক বছর ধরেই। তার অবসান ঘটিয়ে এ বার ই-কমার্স বা নেট বাজারে পা রাখল রিলায়্যান্স রিটেল। ফ্যাশন পোর্টাল অ্যাজিও ডট কমের হাত ধরে মুকেশ অম্বানীর সংস্থাটি দেশি-বিদেশি অনলাইন সংস্থার সঙ্গে পাল্লা দিতে বাজারে নামল।

ভারতের বৃহত্তম রিটেল সংস্থা রিলায়্যান্স রিটেল গত এক বছর ধরে রিলায়্যান্স ফ্রেশ ডিরেক্ট ডট কমের মাধ্যমে মুদিখানার জিনিসপত্র মুম্বই শহরে অনলাইনে বিক্রি করছিল। ২০১৪-’১৫ সালে ১৭,৬৪০ কোটি টাকা ব্যবসা করা এই সংস্থার ৫৪% ব্যবসা জোগায় ৬১৬টি বিপণি। রিলায়্যান্স ফ্রেশ ও রিলায়্যান্স মার্ট মিলিয়ে মোট ২৬২১ বিপণি রয়েছে। সংস্থার দাবি, আগামী দু’মাসে ১৫,০০০ পিনকোডে পৌঁছে যাবে অ্যাজিও ডট কম । ভারতে সব মিলিয়ে ৪০ হাজার পিন কোড রয়েছে।

কয়েক বছর ধরেই রিটেল বা খুচরো বাজারের ক্রেতারা ভিড় জমাচ্ছেন নেট বাজারে। যানজট, ভিড় ঠেলে দোকানে না-ঘুরে, ল্যাপটপ বা মোবাইলের পর্দায় স্রেফ মাউসের ক্লিকে জিনিসের দাম যাচাই করেই কেনাকাটা সারছেন অনেকে। পরিসংখ্যান বলছে, বিশেষত নতুন প্রজন্ম এই ‘হাই-টেক’ বাজারেই স্বচ্ছন্দ। বিশেষজ্ঞ সংস্থা ফরেস্টারের সমীক্ষা অনুযায়ী, ২০১২ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে ৪৫০% বিক্রি বাড়িয়েছে নেট বাজার।

নেট দুনিয়ায় নিজেদের উপস্থিতি বাড়াতে শেষমেষ তাই প্রযুক্তির হাতই ধরছে খুচরো বিপণন সংস্থাগুলি। লক্ষ্য, বেশি ক্রেতা টেনে প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাওয়া। এই তালিকায় রয়েছে রহেজা গোষ্ঠীর সংস্থা শপার্স স্টপও, দেশ জুড়ে ৭২টি বিপণি রয়েছে যাদের। শপার্স স্টপের অন্যতম কর্তা মনোহর কামাথের মতে, কেনাকাটার ধরন বদলাচ্ছে। তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে নেটবাজারে জিনিসপত্র কেনার যাবতীয় সুবিধা দিতেই হবে। এবং সেই লক্ষ্যেই অনলাইন প্রযুক্তির জন্য ৬০ কোটি টাকা ঢালছে সংস্থা। শপার্স স্টপের পথে হেঁটেছে কিশোর বিয়ানির ফিউচার গোষ্ঠীও। আদিত্য বিড়লা গোষ্ঠীও গত বছরের শেষে অনলাইন ফ্যাশন বিপণি চালু করেছে।

প্রসঙ্গত, আগে নেট বাজারের রমরমা বই, সিডি, ট্রেন-প্লেনের টিকেট বিক্রির মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল। এখন বাড়ি-গাড়ি কিনতেও সেই বাজারে ঢুক়ছেন ক্রেতা। রিটেল উপদেষ্টা সংস্থা টেকনোপ্যাকের দাবি, ২০২০ সালে ভারতে অনলাইন বিক্রির পরিমাণ ৩,২০০ ডলার ছুঁয়ে ফেলবে।

Back to top