হোম / শিক্ষা / কারিগরি শিক্ষা / কারিগরি শিক্ষা ঢেলে সাজতে কমিটি
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

কারিগরি শিক্ষা ঢেলে সাজতে কমিটি

দেশে কারিগরি শিক্ষাকে ঢেলে সাজতে অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল অফ টেকনিক্যাল এডুকেশনের কাজকর্ম খতিয়ে দেখতে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক একটি কমিটি গড়েছে। সেই কমিটি কী করবে সেই খবর এখানে।

দেশে কারিগরি শিক্ষার ক্ষেত্রটি শক্তিশালী করা এবং এর কাঠামো ঢেলে সাজার লক্ষ্যে অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল অফ টেকনিক্যাল এডুকেশনের (এআইসিটিই) কাজকর্ম পর্যালোচনা করে দেখার জন্য কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গড়েছে। কমিটির প্রধান হবেন মন্ত্রকের প্রাক্তন সচিব এম কে কও। এবং সদস্য হিসাবে থাকবেন গুজরাত কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এ কে আগরওয়াল, হায়দরাবাদ আইআইটি-র ডিরেক্টর ইউ বি দেশাই এবং মাদ্রাজ আইআইটি-র অশোক ঝুনঝুনওয়ালা।

মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের নির্দেশে বলা হয়েছে, “দেশে কারিগরি প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা প্রচুর বেড়েছে। ফলে তা নানা ধরনের চ্যালেঞ্জও ছুড়ে দিয়েছে। গুণমান রক্ষা করে সেই সব চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে পারলে এবং বিশ্বমানের আচরণগত পদ্ধতি গ্রহণ করতে পারলে দেশের মানব উন্নয়ন সূচক অনেকটাই এগোবে এবং দেশ একটা জ্ঞানের সমাজে পরিণত হবে।”

এআইসিটিই-র কড়া সমালোচনা করে ওই নির্দেশে বলা হয়েছে, “কারিগরি শিক্ষার ক্ষেত্রে বেসরকারি উদ্যোগের চাহিদার সঙ্গে এআইসিটিই যে তাল মিলিয়ে চলতে পারছে না তা ক্রমশই বোঝা যাচ্ছে। কারিগরি শিক্ষার ক্ষেত্রে প্রচুর বেসরকারি প্রতিষ্ঠান যে এসেছে তা এখন সত্য এবং বাণিজ্যিককরণের প্রবণতাও ক্রমেই বাড়ছে। কারিগরি শিক্ষার মান ও পদ্ধতি পুরোপুরি প্রয়োগ করা হচ্ছে না।”

কারিগরি প্রতিষ্ঠানগুলির শিক্ষার মান নির্ধারণ করতে এবং তাদের মধ্যে সমন্বয় সাধন করতে এআইসিটিই কত দূর কাজ করেছে তা খতিয়ে দেখবে কমিটি। এআইসিটিই-র নিয়ন্ত্রণমূলক নাগাল কতটা তার হিসাব করবে কমিটি এবং এর শক্তি ও দুর্বলতাও খুঁজে বের করবে। এআইসিটিই-র আঞ্চলিক অফিসগুলির কাজের মূল্যায়নও করবে কমিটি।

এআইসিটিই-কে কতটা নিয়ন্ত্রণমূলক ক্ষমতা দেওয়া যায় তার মূল্যায়ন করবে কমিটি এবং তার নিয়ন্ত্রণমূলক কাজ ও অনুদান মঞ্জুর করার কাজ বিশ্লেষণ করবে। এই দুই কাজের মধ্যে ভারসাম্য আনতে কী পরিবর্তন দরকার, তারও সুপারিশ করবে কমিটি। বাধ্যতামূলক স্বীকৃতির চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে কারিগরি শিক্ষা ক্ষেত্রে কী ভাবে স্বীকৃতির ব্যবস্থাটিকে শক্তিশালী করা যায় সে সম্পর্কে কমিটি উপায় বাৎলাবে।

আজকের দিনের চাহিদা মেটাতে এবং শিল্প জগতের মানুষদের ডেপুটেশনে ফ্যাকাল্টি হিসাবে নিয়োগ করা, কারিগরি শিক্ষাকে বৃত্তিমূলক করা এবং শিক্ষার বাণিজ্যিককরণ কমাতে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ১৯৮৭-এর এআইসিটিই আইনে কী কী বদল আনা দরকার সে সম্পর্কে প্রস্তাব দিতে বলা হয়েছে কমিটিকে। কমিটি ছ’ মাসের মধ্যে রিপোর্ট দেবে বলে জানিয়েছে নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

সূত্র : India Education Review, ৩ নভেম্বর ২০১৪।

2.92741935484
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
Back to top