হোম / শিক্ষা / ওঁরা পথ দেখান / চাকরি পেতে আইটি ভিত গড়তে কোর
ভাগ করে নিন

চাকরি পেতে আইটি ভিত গড়তে কোর

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে বিই, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিএ (স্বর্ণপদক), কানপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি সুজয় বিশ্বাস ‘টেকনো ইন্ডিয়া’ গোষ্ঠীর ডিরেক্টর এবং সিইও। ইঞ্জিনিয়ারিং পাঠক্রম নিয়ে তাঁর সঙ্গে কথা বললেন অশোক সেনগুপ্ত।

ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তি হতে চায় বহু  পড়ুয়া। ওরা জানতে চায় ‘কোর’ না আইটি— কোনটা ভাল, কেন?

চটজলদি চাকরির জন্য আইটি ভাল। কিন্তু ভিত তৈরির জন্য ‘কোর’। ইঞ্জিনিয়ারিং-এ কোর বিষয়গুলির একটা অন্য রকম গুরুত্ব আছে। রতন টাটা বলেছেন ‘ট্রাই টু বি ডিফারেন্ট’। এপিজে আবদুল কালাম বলেছেন, ‘ট্রাই টু বি ইউনিক’।  এই স্বপ্ন রূপায়িত করতে গেলে কেবল আইটি-তে হবে না। এটা হয়তো ঠিক, তুলনামূলক ভাবে ‘কোরের’ তুলনায় আইটি-র কাজে বেতন ভাল। আমার মনে হয়, ‘কোর’-এ স্থায়ীত্ব বেশি।

আইটি-তে হরেক স্পেশালাইজেশন। কোনটা ভাল, কেন?

কম্পিউটার সায়েন্স, ইলেকট্রনিক্স, আইটি, ইন্সট্রুমেন্টেশন— চাহিদার পর্যায়টা কেউ এ ভাবে সাজাতে পারেন। কিন্তু, এটা বাস্তবে অনেক সময়ই খাটে না। কে, কোথা থেকে  পাশ করছে— সেটা নিয়োগকর্তাদের কাছে বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়ায়।

প্রতিষ্ঠান না স্পেশালাইজেশন— কোনটার উপর গুরুত্ব দেওয়া উচিত?

আমি তো বলব প্রতিষ্ঠানটা খুব বড় বিচার্য বিষয়। একটা ছেলে বা মেয়ে চার বছরের শিক্ষার পর ৩৫-৪০ বছর চাকরি করবে। তার এই শিক্ষার ভিতটা যদি শক্ত না হয়, ভবিষ্যতকে কী ভাবে নিশ্চিত করবে? ভাল প্রতিষ্ঠানে ক্যাম্পাসিং ভাল। উদাহরণ হিসাবে বলতে পারি, ফি বছর টেকনো গোষ্ঠীর ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বি টেক কলেজগুলির প্রায় চার হাজার শিক্ষার্থীর ৮৫ শতাংশ ক্যাম্পাসিংয়ে কাজ পেয়ে যাচ্ছেন। সেখানে টেকনো সল্টলেকের অন্তত ৯২ শতাংশ শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসিংয়ে কাজ পাচ্ছেন।

কিন্তু প্রতিষ্ঠান ভাল হলেই কী  শেখার ভিত শক্ত হবে?

ভাল প্রতিষ্ঠানে ভাল শিক্ষাগত যোগ্যতার ছেলেমেয়েরা আসবে। নিজেদের সঙ্গে নিরন্তর প্রতিযোগিতায় ওদের একটা উন্নতি আসতে বাধ্য। এ ছাড়া, ভাল প্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা, শিক্ষক, পরিকাঠামো— এ সবই ভাল। এর সুফলটাও সংশ্লিষ্ট পড়ুয়া পাবে। উদাহরণ হিসাবে বলছি, ক্যাম্পাস রিক্রুটমেন্টের সময় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করা ৯০ জন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারের ৭০ জন ভাল আইটি সংস্থায় ডাক পান। কারণ, কোন শাখার ছাত্র, তার চেয়েও বড় বিষয়, কোথাকার ছাত্র।

হবু বা  নবীন ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য বিশেষ কোনও পরামর্শ?

গোড়া থেকে নিজেকে তৈরি করতে হবে। ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়াদের অনেকে ঠিকমতো পড়াশোনা করে না। হয়তো ভাবে, খেটে কী হবে? আইটি-র কোনও কোম্পানিতে ঠিক কাজ হয়ে যাবে! অনেক সময় ক্রমেই ক্লাসের পাঠক্রমে সে পিছিয়ে যায়। কিন্তু আইটিতে-ও ভাল ‘কোডিং’ মানে ‘ল্যাঙ্গোয়েজ’ বা ‘ডিজাইনিং’  ভাল ভাবে রপ্ত করার জন্য ‘প্রোগ্রাম ডেভেলপমেন্ট’ শিখতে হবে মন দিয়ে। কেবল আইটি-র কাজের কথা ভাবলে চলবে না। ‘নবরত্ন কোম্পানি’, অধিগৃহীত সংস্থা, প্রতিরক্ষা মন্ত্রক বা সরকারি নানা দফতরে প্রতি বছর প্রচুর ইঞ্জিনিয়ার নেয়। কেবল স্নাতক পরীক্ষায় নয়, ‘গেট’ পরীক্ষায় ভাল ফল করতে হবে। দ্বিতীয় বর্ষ থেকে নিতে হবে প্রস্তুতি। নিষ্ঠার সঙ্গে তৈরি হলে কাজের কোন দরজা, কখন-কী ভাবে খুলবে, কেউ ভাবতেও পারে না।

সুত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

2.84615384615
তারকাগুলির ওপর ঘোরান এবং তারপর মূল্যাঙ্কন করতে ক্লিক করুন.
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top