ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

সপ্তাহান্তের বেড়ানো

কোনও জায়গা থেকে সপ্তাহান্তের ছুটিতে বেড়িয়ে আসা যাবে কি না, তা ঠিক হয়, তোমার বাড়ি থেকে সেটা কত দূরে তার ওপর। অর্থাৎ যাওয়া আসায় কতটা সময় লাগছে। তাই এই বিভাগে আমরা পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি জেলার সপ্তাহান্তের বেড়ানোর বেশ কেয়েকটি জায়গা সম্পর্কে আলোচনা করছি। দেখে নাও কার কোনটা সুবিধা আর বেড়িয়ে পড়। এর বাইরেও প্রতি দিন তৈরি হচ্ছে বেড়ানোর নতুন নতুন জায়গা। সেগুলোর খোঁজ পেলে আমাদের জানাতে ভুলো না।

নয়াগ্রাম
বাংলার হারিয়ে যেতে বসা পটচিত্রের শিল্পীদের গ্রাম।
দিঘা-শঙ্করপুর-মন্দারমণি
হাতিবাড়ি
পশ্চিমবঙ্গ-ওড়িশা-ঝাড়খণ্ড, এই তিন রাজ্যের সীমানায় সুবর্ণরেখা নদীর ধারে প্রকৃতিপ্রেমী পর্যটকদের জন্য সুন্দর ভাবে সেজে রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের গোপীবল্লভপুরের হাতিবাড়ি। পাহাড় আর পাহাড়, মাঝে আরণ্যক পরিবেশ আর
বেলপাহাড়ি-কাঁকড়াঝোড়
ঝাড়গ্রাম থেকে ৩৫ কিলোমিটার দূরের বেলপাহাড়ি পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র।
ঝাড়গ্রাম-গড়শালবনি
শাল মহুয়ার জঙ্গলে ঘেরা ঝাড়গ্রামের আকর্ষণ প্রকৃতিপ্রেমীদের কাছে দুর্নিবার।
টাকি
৮০ কিলোমিটার দূর কলকাতা থেকে। শিয়ালদা থেকে মাত্র দু’ঘন্টার ট্রেন জার্নি করলেই পৌঁছে যাবে টাকি।
হেনরি আইল্যান্ড
হাতে হঠাৎই দিন দুই ছুটি। কলকাতার অদূরেই কোথাও গিয়ে একটু নির্ভেজাল বিশ্রামের মেজাজে থাকতে চাও ?
বকখালি-ফ্রেজারগঞ্জ
কলকাতা থেকে ১৩০ কিমি দূরে পাশাপাশি দুই সমুদ্রসৈকত বকখালি ও ফ্রেজারগঞ্জ।
সুন্দরবন
গড়চুমুক
হাওড়া মানেই শুধু রেল স্টেশন এমনটা যারা ভাবে তাদের ভুল ভাঙানোর জন্য আদর্শ জায়গা উলুবেড়িয়ার পাশেই গড়চুমুক।
ন্যাভিগেশন
Back to top