ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

সপ্তাহান্তের বেড়ানো

কোনও জায়গা থেকে সপ্তাহান্তের ছুটিতে বেড়িয়ে আসা যাবে কি না, তা ঠিক হয়, তোমার বাড়ি থেকে সেটা কত দূরে তার ওপর। অর্থাৎ যাওয়া আসায় কতটা সময় লাগছে। তাই এই বিভাগে আমরা পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি জেলার সপ্তাহান্তের বেড়ানোর বেশ কেয়েকটি জায়গা সম্পর্কে আলোচনা করছি। দেখে নাও কার কোনটা সুবিধা আর বেড়িয়ে পড়। এর বাইরেও প্রতি দিন তৈরি হচ্ছে বেড়ানোর নতুন নতুন জায়গা। সেগুলোর খোঁজ পেলে আমাদের জানাতে ভুলো না।

মুকুটমণিপুর
কংসাবতী ও কুমারী নদীর সঙ্গমে উইক-এণ্ড ছুটি কাটানোর দারুণ স্পট মুকুটমণিপুর।
গড়পঞ্চকোট
পাহাড়ের গা ঘেঁষে পিচ রাস্তা। বাঁ দিকে পঞ্চকোট পাহাড় ক্রমশ মাথা তুলেছে। ডান দিকে ধানক্ষেত।
ইছাই ঘোষের দেউল
গাড়ির পথ গেছে পানাগড় হয়ে। কলকাতা থেকে দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ে বরাবর পানাগড়।
ভালকি মাচান
ভালকির জঙ্গল। নীল আকাশের নীচে শাল, পিয়ালের রাজ্য।
অম্বিকা কালনা
ভাগীরথীর তীরে অম্বিকা কালনা। এখানে অম্বিকা দেবীর মন্দির ও তৎসংলগ্ন রাসমঞ্চ উল্লেখযোগ্য।
পূর্বস্থলী
দুই থেকে তিন কিলোমিটার লম্বা এক অশ্বক্ষুরাকৃতি হ্রদ আর তাকে ঘিরে পরিযায়ী পাখিদের ভিড় পূর্বস্থলীকে পশ্চিমবঙ্গের পর্যটন মানচিত্রে জনপ্রিয় করে দিয়েছে।
শিবনিবাস
আড়াইশো বছরের এক গৌরবময় ইতিহাসের পাঠ নিতে এক দিন চলো বাংলার কাশী শিবনিবাসে।
পলাশি
পলাশি বাজার পেরিয়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ছেড়ে বাঁ হাতি অপ্রশস্ত রাস্তাটা চলে গেছে পলাশির সেই প্রান্তরে, যেখানে বাঙালির খুনে লাল হয়েছিল ক্লাইভের খঞ্জর।
বেথুয়াডহরি
বেথুয়াডহরি সংরক্ষিত অভয়ারণ্য ৬৭ হেক্টরের বনভূমি --- কলকাতা থেকে ১৩০ কিলোমিটার দূরে, উত্তরবঙ্গগামী ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের বাঁ দিকে।
নবদ্বীপ
ন্যাভিগেশন
Back to top