ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

বিনামূল্যে ইউনিফর্ম ও বই

আরটিই বাস্তবায়িত করতে কত টাকা কোন খাতে খরচ হবে তা এখানে বিস্তারিত বলা হয়েছে।

আরটিই আইন কার্যকর করার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার যে পথনির্দেশিকা তৈরি করেছে, তা যদি সমস্ত রাজ্য সরকার গ্রহণ করে তা হলে প্রথম শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠরত দেশের প্রতিটি শিশু বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক ও ইউনিফর্ম পাবে। শিশুর বিনামূল্যে ও বাধ্যতামূলক শিক্ষার অধিকার আইন কার্যকর করার পথনির্দেশিকাটি নিয়ে রাজ্যের শিক্ষাসচিবদের একটি বৈঠকে আলোচিত হয়।

বৈঠকের কার্যবিবরণী অনুসারে:

  • ১. নতুন আইন কার্যকর করতে ৭.৮ লক্ষ নতুন শ্রেণিকক্ষ এবং ৭ লক্ষ মহিলা-শৌচাগার তৈরি করতে হবে। আইন কার্যকর করার জন্য ৫ বছরে সরকার ১.৭১ লক্ষ কোটি টাকা খরচ করবে।
  • ২. প্রতিটি শিশু বছরে ৪০০ টাকা মূল্যের ইউনিফর্ম পাবে। অনেকগুলি রাজ্য ইতিমধ্যেই নিজেদের বাজেট থেকে ইউনিফর্ম দিয়ে থাকে। তবে ইউনিফর্ম দেওয়ার দায়িত্ব থাকবে রাজ্য সরকারের উপর। এর জন্য রাজ্যগুলিকে পথনির্দেশিকার সঙ্গে সহমত হতে হবে এবং সেইমত নতুন নিয়ম তৈরি করতে হবে।
  • ৩. প্রতিটি শিশুকে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক দেওয়া হবে। যে সব শিশুর বিশেষ প্রয়োজন আছে তাকে বছরে ৩ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। একই রকম ভাবে অত্যন্ত প্রতিবন্ধী শিশুদের, বাড়িতে থেকে পড়াশোনা করার জন্য বছরে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।
  • ৪. আরটিই আইন অনুযায়ী, প্রতি ৩০ জন ছাত্রে ১ জন শিক্ষক রাখতে হবে। এর জন্য আরও ৫.১ লক্ষ শিক্ষক প্রয়োজন। শুধু উত্তরপ্রদেশেই দেড় লক্ষ শিক্ষক প্রয়োজন। বিহার ও গুজরাত, দুই রাজ্যেই ৫০ হাজার থেকে ১ লক্ষ করে শিক্ষক দরকার।
  • ৫. স্কুলে পড়ার সুযোগ, পরিকাঠামো, প্রশিক্ষিত নয় এমন শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া এবং স্কুলের বাইরে থাকা শিশুদের ব্যাপারে পদক্ষেপ করার জন্য ১.৭১ লক্ষ কোটি টাকা খরচ করা হবে। শিক্ষকদের বেতনের জন্য ২৮% এবং স্কুলের নির্মাণ কাজের জন্য এই টাকার ২৪% খরচ হবে।
  • ৬. মোট খরচের ১৭% খরচ হবে শিশুদের পড়াশোনার অধিকার দেওয়ার জন্য, অন্য দিকে ৯ % খরচ হবে স্কুলের বাইরে থাকা শিশুদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দিতে। ৮ % টাকা খরচ হবে স্কুলে নানা পরিকাঠামো তৈরি করার জন্য।
  • ৭. ৭.৬ লক্ষ অপ্রশিক্ষিত শিক্ষককে আগামী ৫ বছরে প্রশিক্ষিত করা হবে। সবচয়ে বেশি অপ্রশিক্ষিত শিক্ষক রয়েছেন বিহার, গুজরাত ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিতে।
  • ৮. বিশেষ প্রয়োজন আছে, এমন শিশুদের জন্য আরটিই বাধাহীন শিক্ষার ব্যবস্থার করতে চায়। আইন অনুযায়ী একটি শ্রেণিকক্ষে এক জন শিক্ষক থাকতে হবে। এর জন্য অতিরিক্ত ৭.৮ লক্ষ শ্রেণিকক্ষ তৈরি করা প্রয়োজন। এর মধ্যে অধিকাংশই লাগবে উত্তর প্রদেশ ও বিহারে( আড়াই লক্ষ করে), তার পর রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ (১.৩ লক্ষ) ও অসম (৩০ হাজার)।
  • ৯. দেশে প্রায় ২৭০০০ স্কুলে কাঁচা বাড়ি রয়েছে, যেগুলিকে পাকা করতে হবে। মেয়েদের জন্য প্রায় ৭ লক্ষ শৌচাগার তৈরি করতে হবে। এর মধ্যে বিহারে ৯০,০০০, মধ্য প্রদেশে ৬৩,০০০, ওড়িশায় ৫৪,০০০। প্রায় ৩.৪ লক্ষ স্কুলে খাওয়ার জলের ব্যবস্থা করতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সংযোগ

  1. Notification of the Constitution (Eighty-Sixth Amendment) Act , 2002 and Right of Children to Free and Compulsory Education Act , 2009
  2. Notification for appointment of NCTE as academic authority u/s 23 of the RTE Act and of NCERT as the academic authority u/s 29 of the RTE Act.
  3. Right To Education Bill 2005
  4. Reservation in Private Schools under the Right to Education Act
  5. Procedure of Admission in to schools under the RTE
  6. SSA final report on RTE act–2009
  7. Guidelines under Section 35(1) of the RTE Act, 2009
  8. Corrigendum in respect of section 19(1) of the Right of Children to Free and Compulsory Education Act , 2009
  9. Eligibility for Appointment as Teacher for the class I to VIII under the RTE
  10. Teacher Eligibility Test under the RTE
  11. Model rules under the right of children to free & compulsory education act 2009
  12. The Right of Children to Free and Compulsory Education Rules, 2010
  13. A.P Right of Children to Free and Compulsory Education Rules, 2010
3.05673758865
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top