ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

রসুন

এখানে রসুনের উপকারিতা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

রসুনে রয়েছে এলিসিন যা ব্রডস্পেকট্রাম যা অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে কাজ করে। তা ছাড়া এলিসটাটিন, এলিসাটিনসহ নানা প্রকার কার্যকর উপাদান রয়েছে। যা রক্তের কোলেস্টেরল হ্রাস সহ বিভিন্ন কাজ করে থাকে। প্রথম বার হার্ট অ্যাটাকের পর রোজ কাঁচা রসুন খাওয়া রোগীরা বেশির ভাগই দ্বিতীয় অ্যাটাকে আক্রান্ত হন না বা হলেও অনেক পরে। নিয়মিত কাঁচা রসুন সেবনে মোট কোলেস্টেরলের মাত্রা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কমে। কাঁচা রসুন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, বিভিন্ন সংক্রমণ রোধ করে, ক্ষত দূরীকরণে সাহায্য করে, সর্দিকাশি ও প্রদাহ দূর করে। যে কোনও রসুনের একটা কোয়া পাতলা পর্দা বাদ দিয়ে ছেঁচ করে বা চিবিয়ে ভরা পেটে খেতে শুরু করুন। আস্তে আস্তে এর মাত্রা বাড়ানো যায়। তবে যাঁরা করোনারি হৃদরোগী, বিশেষ করে যাঁরা নিয়মিত অ্যাসপিরিন খান, তাঁরা বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে রসুন খেতে শুরু করুন।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, একটি মাঝারি সাইজের রসুনে এক লাখ ইউনিট পেনিসিলিনের সমান অ্যান্টিবায়োটিকের কার্যক্ষমতা রয়েছে। শুধু তাই নয়, ব্যাকটেরিয়া ও প্রোটোজোয়ার মাধ্যমে সৃষ্টি অ্যামিবিক ডিসেনট্রি নির্মূলের ক্ষেত্রে রসুন বেশ কার্যকরী। আধুনিক ভেষজ চিকিত্সকরাও সর্দি, কাশি, জ্বর, ফ্লু, ব্রঙ্কাইটিস, কৃমি, রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ, খাদ্য পরিপাকের সমস্যাসহ লিভার ও পিত্তথলির নানা উপসর্গ দূর করতে রসুন খাওয়ার পরামর্শ দেন। দেহের রোগ সংক্রমণ দূর করার জন্য এক সঙ্গে তিন কোয়া রসুন দিনে তিন থেকে চার বার চিবিয়ে খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। রক্তের চাপ ও রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমানোর জন্য প্রতি দিন তিন থেকে ১০ কোয়া রসুন খেতে পারেন। তা ছাড়া রসুনের জল সেবন করতে হলে ছয় কোয়া রসুন পিষে এককাপ ঠান্ডা জলে ৬ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। তার পর ভালো ভাবে ছেঁকে রসুন জল সেবন করুন।

এক নজরে রসুনের উপকারিতা ---

  • যাঁরা উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন তাঁরা রসুন খেতে পারেন। উপকার পাবেন।
  • রক্তে কোলেস্টেরল স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলে কাঁচা রসুন চিবিয়ে খান।
  • আয়ুর্বেদিক ওষুধ বানাতে রসুন ব্যবহৃত হয়। ওজন কমানোর আয়ুর্বেদিক প্যাকেট বানাতেও ব্যবহৃত হয় রসুন।
  • সর্দিকাশিতেও রসুন উপকারী।
  • শরীরের ব্যথা কমায় রসুন। রসুন হচ্ছে ন্যাচারাল পেনকিলার। শিশু কিংবা বড়দের দাঁতে ব্যথা হলে একে কোয়া রসুন চিবোলে দাঁতে ব্যথা উপশম হবে।
  • ক্যানসার প্রতিরোধ করে রসুন।
  • রসুনে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন বি ৬ এবং ভিটামিন সি।
  • হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সহায়ক রসুন।
  • নিয়মিত রসুন খেলে ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসজনিত রোগের ঝুঁকি কমে যায়।
  • আমেরিকান ক্যানসার ইনস্টিটিউটের গবেষকরা জানান, নিয়মিত রসুন খেলে প্রোস্টেট ক্যানসার, স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়।
  • সবচেয়ে বেশি উপকার পেতে কাঁচা রসুন চিবিয়ে খান। কাঁচা রসুন অ্যান্টিবায়োটিকের মতো কাজ করে।

তথ্যসূত্র : বাংলামেল ২৪ ডট কম, স্বাস্থ্য বার্তা এবং অন্যান্য সূত্র থেকে সংগৃহীত

2.91666666667
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top