হোম / স্বাস্থ্য / নানা খবর / ৮০ জন নাতি-পুতি নিয়ে মেরি’র ক্রিসমাস
ভাগ করে নিন

৮০ জন নাতি-পুতি নিয়ে মেরি’র ক্রিসমাস

শেফিল্ড-এর মেরি স্কলি-র বড়দিন আক্ষরিক অর্থেই মেরি ক্রিসমাস | সে এক এলাহী আয়োজন | এ বছরের উত্সব মিটতে না মিটতেই শুরু হয়ে যায় পরের বছরের প্রস্তুতি, একেবারে জানুয়ারী থেকেই | কারণ আছে, যথেষ্ট কারণ আছে | আসলে ৮২ বছরের মেরি’র পরিবারটি বড্ড বড় | নাতি-পুতির সংখ্যাই প্রায় ৮০ জন | সবার জন্য গিফট কেনা, খাওয়া-দাওয়া প্ল্যান করা, চাট্টিখানি ব্যাপার!নাতি-নাতনি ৩৩ জন, পুতির সংখ্যা ৪৪ জন আর আরো ৩ জন নাতি-নাতনির ছেলেমেয়ে |

তা এমন নাম্বার গেমে মেরি পৌছলেন কি করে! মেরি’র নিজেরাই দশ সন্তান – দু’জোড়া যমজ আর আলাদা আলাদা ছ’জন | এসবই কিন্তু মেরি’র প্রথম স্বামী জিম-এর সঙ্গে, যিনি প্রায় ২০ বছর আগে মারা গেছেন | এখন মেরি থাকেন রেমন্ড-এর সঙ্গে | মেরি’র দুই সন্তান মারা গেছেন, জীবিতদের মধ্যে যিনি সবচেয়ে বড় তাঁর বয়স এখন ৬২ |

ছেলেমেয়ে, নাতি-পুতিরা কিন্তু বলছে সবার নামই নাকি মনে থাকে মেরি’র | কাউকেই গিফট পাঠাতে ভোলেন না তিনি , এমনকি সবার জন্য থাকে স্পেশাল কার্ডও | তবে আজকাল আর বড়দের গিফট দিচ্ছেন না তিনি | কারণ খরচের ধাক্কা সামলানো মুশকিল হয়ে যাচ্ছে | তবে ছোটদের জন্য এমনকি তাদের জন্মদিনেও অকাতর মেরি | এতোজনকে পোস্টের মাধ্যমেও কার্ড পাঠানোর খরচও কম নয় | তাই আজকাল যারা কাছাকাছি থাকেন তাঁরাই অন্যদের কাছে কার্ড পাঠিয়ে দেন |

বেশ কিছুদিন ধরেই একসঙ্গে সবাইকে দেখার বায়না ধরেছিলেন মেরি | তাই ছেলে স্টিফেন আয়োজন করে ফেলেছিলেন এক প্রি -ক্রিসমাস ফ্যামিলি গেট টু গেদার-এর | শেফিল্ডের ‘Wadsley Bridge Working Men’s Club’-এ আয়োজিত সেই পার্টিতে হাজিরা দিয়েছিলেন ১০০ জনেরও বেশি ফ্যামিলি মেম্বার | একে একে লাইন দিয়ে সবাই চুমু এঁকে দিয়েছেন মেরি’র গালে | স্বাভাবিকভাবেই খুশিতে এখন ডগমগ মেরি | সামনের বছর আরো চার চারজন নতুন সদস্যও আসতে চলেছে মেরি’র পরিবারে |

সুত্রঃ banglalive.com

 

2.93442622951
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top