হোম / স্বাস্থ্য / নীতি ও প্রকল্প / জাতীয় স্বাস্থ্য কর্মসূচি / অসংক্রামক এবং সংক্রামক রোগ / জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য কর্মসূচি (ন্যাশনাল মেন্টাল হেলথ প্রোগ্রাম)
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য কর্মসূচি (ন্যাশনাল মেন্টাল হেলথ প্রোগ্রাম)

আনুমানিক দেশের জনসংখ্যার ৬-৭ শতাংশ মানসিক রোগে ভুগছে।

আনুমানিক দেশের জনসংখ্যার ৬-৭ শতাংশ মানসিক রোগে ভুগছে। বিশ্ব ব্যাঙ্কের একটি রির্পোট (১৯৯৩) অনুযায়ী ডিজএবিলিটি অ্যাডজাস্টটেড লাইফ ইয়ার (ডিএএলআই)-এ যদি ব্যক্তিগত ভাবে ধরা হয়, স্নায়ু মানসিক রোগে আক্রান্তের সংখ্যা ডায়েরিয়া, ম্যালেরিয়া এবং টিবিকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। সারা বিশ্ব এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ শতাংশ। মনে করা হচ্ছে ২০২০ আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াবে ১৫ শতাংশে (বিশ্ব স্বাস্থ্য রিপোর্ট ২০০১)। চারটি পরিবারের মধ্যে একটি পরিবারে অন্তত এক জনের আচরণগত এবং মানসিক রোগ দেখা যাচ্ছে। এই পরিবারগুলিকে নানা সামাজিক নেতিবাচক প্রভাব এবং বৈষম্য সহ্য করতে হয়। এর ফলে অধিকাংশ ক্ষেত্রে অসুস্থ ব্যক্তিরা চিকিৎসাবিহীন অবস্থায় থেকে যায়। এই ধরনের অসুস্থতা সম্পর্কে সচেতনতার অভাবে, চিকিৎসার এবং অন্যান্য সুবিধার লভ্যতা সম্পর্কে জ্ঞানের অভাবে চিকিৎসার ক্ষেত্রে ফাঁক থেকে যায়। ১৯৮২ সালে ভারত সরকার জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য কর্মসূচির সূচনা করে। এর উদ্দেশ্য হল :

  • সুদুর ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে ন্যূনতম মানসিক স্বাস্থ্য পরিষেবা নিশ্চিত করা, বিশেষ করে সব চেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ এবং অবহেলিত জনসংখ্যার জন্য;
  • সাধারণ মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জ্ঞান প্রয়োগে উৎসাহ দান এবং
  • মানসিক স্বাস্থ্য পরিষেবা উন্নয়নে গোষ্ঠীর অংশগ্রহণ এবং গোষ্ঠীর মধ্যে আত্মনির্ভরশীলতা গড়ে তোলা;

এনএমএইচপি-র অধীনে জেলা মানসিক স্বাস্থ্য কর্মসূচি (ডিস্ট্রিক মেন্টাল হেলথ প্রোগ্রাম বা ডিএমএইচপি) নেওয়া হয় ১৯৯৬ সালে (নবম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায়)। এই ডিএমএইচপি তৈরি করা হয়েছে ‘বেলারি মেডেল’-এর উপর ভিত্তি করে। এর নিম্নলিখিত উপাদান রয়েছে :

  • প্রাথমিক স্তরে রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসা
  • প্রশিক্ষণ : রোগ নির্ণয়ের জন্য চিকিৎসককে স্বল্পমেয়াদী প্রশিক্ষণ প্রদান ও বিশেষজ্ঞের পরামর্শমতো সীমিত ওষুধে মানসিক রোগের চিকিৎসা। মানসিক রোগী চিহ্নিত করতে স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ
  • আইইসি : জন সচেতনতা তৈরি
  • পর্যবেক্ষণ: রেকর্ড রাখার জন্য

১৯৯৬ সালে এই কর্মসূচি চালু হয় ৪ জেলায়। নবম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার শেষে এই কর্মসূচিকে ২৭ জেলায় বাস্তবায়িত করা সম্ভব হয়েছে।

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন : http://mohfw.nic.in/WriteReadData/l892s/9903463892NMHP%20detail.pdf

2.93103448276
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top