ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

লক্ষ্য ও কৌশল

এখানে এনআরএইচএম-এর লক্ষ্য ও কৌশল বর্ণনা করা হয়েছে।

লক্ষ্য

  • শিশু মৃত্যুর হার এবং মাতৃত্বকালীন মৃত্যুর হার কমানো
  • নারীর স্বাস্থ্য, শিশুর স্বাস্থ্য, জল, পরিচ্ছনতা, প্রতিষেধক এবং পুষ্টি-র মতো সর্বজনীন স্বাস্থ্য পরিষেবার লভ্যতা।
  • সংক্রামক, অসংক্রামক এবং আঞ্চলিক ভাবে প্রাদুর্ভাব রয়েছে এমন রোগের প্রতিষেধক এবং নিয়ন্ত্রণ।
  • জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ, লিঙ্গ এবং জনসংখ্যার ভারসাম্যের সঙ্গে সংযুক্ত প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিষেবার লভ্যতা।
  • স্থানীয় স্বাস্থ্য ঐতিহ্য এবং মূলধারা আষুষের পুনরুজ্জীবন।
  • স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের ইতিবাচক দিক নিয়ে প্রচার।

কৌশল

মুখ্য কৌশল

  • পঞ্চায়েতিরাজ প্রতিষ্ঠান (পিআরআই) যাতে নিজে জনস্বাস্থ্য পরিষেবা দিতে পারে এবং তা নিয়ন্ত্রণ ও পরিচালনা করতে পারে তার জন্য প্রশিক্ষণ এবং দক্ষতা তৈরি।
  • মহিলা স্বাস্থ্যকর্মীদের (আশা) মাধ্যমে পরিবার স্তরে স্বাস্থ্য পরিষেবার লভ্যতা এবং উন্নতি।
  • পঞ্চায়েতের গ্রামীণ স্বাস্থ্য কমিটির তৈরি করা প্রতিটি গ্রামের জন্য স্বাস্থ্য পরিকল্পনা।
  • যৌথ তহবিলের মাধ্যমে স্থানীয় পরিকল্পনা, কর্মসূচি এবং আরও বহুমুখী কর্মী নিয়োগের মধ্য দিয়ে সাব-সেন্টারকে শক্তিশালী করা।
  • চালু প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র (পিএইচসি) এবং গোষ্ঠী স্বাস্থ্য কেন্দ্র (সিএইচসি) শক্তিশালী করে ৩০-৫০ বেডের ব্যবস্থা।
  • রোগ নিরাময় ব্যবস্থাকে আদর্শ মানে (ভারতীয় জন স্বাস্থ্য মান অনুযায়ী কর্মী, সরঞ্জাম এবং পরিচালন সংক্রান্ত মান) উন্নীত করার জন্য প্রতি লাখ জনসংখ্যায় একটি সিএইসি।
  • পানীয় জল, পরিচ্ছনতা ও স্বাস্থ্যবিধি এবং পুষ্টিকে অন্তর্ভুক্ত করে জেলা স্বাস্থ্য মিশন একটি আন্ত-ক্ষেত্র জেলা স্বাস্থ্য পরিকল্পনা তৈরি করবে এবং রূপায়ণ করবে।
  • জাতীয়, রাজ্য, ব্লক এবং জেলাস্তরে স্বাস্থ্য এবং পরিবার কল্যাণকে সংযুক্ত করা।
  • জনস্বাস্থ্য পরিচালনার জন্য জাতীয়, রাজ্য এবং জেলা স্বাস্থ্য মিশনকে প্রযুক্তিগত সহায়তা।
  • তথ্য সংগ্রহের ক্ষমতাকে বাড়ানো, প্রমাণভিত্তিক পরিকল্পনা, পর্যবেক্ষণ এবং তত্ত্বাবধানের জন্য মূল্যায়ন এবং পর্যালোচনা।
  • স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পেশার উন্নয়ন এবং বিস্তৃতির জন্য স্বচ্ছ নীতি প্রণয়ন।
  • প্রতিরোধের উপর জোর দিয়ে সব স্তরে সুস্থ জীবনশৈলির প্রসার। তামাক, মদ ইত্যাদি ব্যবহার কমানোর পরামর্শ।
  • যে সব এলাকায় স্বাস্থ্য পরিষেবা বঞ্চিত সেখানে অলাভজনক ক্ষেত্রের প্রচার ও প্রসার।

সহায়ক কৌশল

  • গ্রামীণ হাতুড়ে চিকিৎসক সহ বেসরকারি ক্ষেত্রকে নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে যুক্তিসঙ্গত খরচে উন্নত মানের চিকিৎসার লভ্যতা নিশ্চিত করা।
  • জনস্বাস্থ্য লক্ষ্যে পৌঁছতে সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগের প্রসার।
  • স্থানীয় ঐতিহ্যবাহী চিকিৎসা পদ্ধতির পুনরুজ্জীবনের মাধ্যমে আয়ুষকে মূলস্রোতে আনা।
  • গ্রামীণ স্বাস্থ্য সমস্যাগুলিকে চিকিৎসাবিজ্ঞান শিক্ষা এবং নীতির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা।
  • কার্যকর ভাবে ঝুঁকি গ্রহণ এবং সামাজিক স্বাস্থ্য বিমার মাধ্যমে দরিদ্র শ্রেণির মানুষকে সহজগম্য, সাশ্রয়ী, দায়বদ্ধ ও উন্নতমানের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা প্রদান।
3.06896551724
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top