হোম / স্বাস্থ্য / পুষ্টি / মানবদেহে উৎসেচকের প্রয়োজনীয়তা
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

মানবদেহে উৎসেচকের প্রয়োজনীয়তা

মানবদেহে উৎসেচকের প্রয়োজনীয়তা সম্মন্ধে বলা হয়েছে .

সাধারণত প্রোটিন ধর্মী যে দ্রবণীয় জৈব অনুঘটক সজীব কোষে উৎপন্ন হয় কিন্তু ওই কোষের নিয়ন্ত্রণাধীনে না থেকে না না ধরনের রাসায়নিক বিক্রিয়াকে প্রভাবিত করে এবং বিক্রিয়ার শেষে নিজে অপরিবর্তিত থাকে, তাদের উৎসেচক বলে।

উৎসেচকর বৈশিষ্ট্য

(Characteristics of enzymes)

  • একটি উৎসেচক কেবল একটি নির্দিষ্ট সাবসট্রেটের ওপর কাজ করতে পারে। উৎসেচকের যে বস্তুর ওপর ক্রিয়া করে তাকে সাবসট্রেট বলে।
  • উৎসেচকের অনুঘটক হিসাবে কাজ করে এবং বিক্রিয়ার শেষে নিজে অপরিবর্তিত থাকে, বিক্রিয়ার শেষে উৎসেচকের কোনরকম রাসায়নিক গঠনের পরিবর্তন হয় না।
  • উৎসেচক কোনো রাসায়নিক বিক্রিয়াকে শুরু করতে পারে না, কেবল রাসায়নিক বিক্রিয়ার হারকে বাড়ায় বা কমায়।
  • উৎসেচকের সক্রিয়তা একটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রার ওপর নির্ভর করে। সাধারণত   তাপমাত্রায় উৎসেচকের ক্রিয়া ভালো হয়। বেশী তাপে উৎসেচকের ক্রিয়া নষ্ট হয়ে যায়।
  • প্রতিটি উৎসেচক একটি নির্দিষ্ট

 

উৎসেচকের শ্রেণীবিন্যাস

(Classification of enzymes )

যে সব উৎসেচক খাদ্য পরিপাকে অংশ গ্রহণ করে তাদের পাচক উৎসেচক বলে। পাচক উৎসেচক তিন প্রকারের

১৷জারক উৎসেচক ( Oxidising enzymes ) - যে সব উৎসেচক জারন ক্রিয়ায় সহায়তা করে, তাদের জারক উৎসেচক বলে। যেমন – গ্লুকোজ-অক্সিনেজ, ডিহাইড্রোজিনেজ ইত্যাদি।

২৷ বিজারক উৎসেচক (Reducing enzymes) - যে সব উৎসেচক বিজারন ক্রিয়ায় অংশ গ্রহণ করে, তাদের বিজারক উৎসেচক বলে। যেমন – NADP , ADP  ইত্যাদি ।

৩৷ পাচক উৎসেচক (Digestive enzymes) - যে সব উৎসেচক পাচন ক্রিয়ায় অংশ গ্রহণ করে, তাদের পাচক উৎসেচক বলে। পাচক উৎসেচক তিন প্রকারের

(i) অ্যামাইলোলাইটিক (Amylolytic) - যে সব উৎসেচক শর্করা জাতীয় খাদ্য পরিপাক করে, তাদের অ্যামাইলোলাইটিক বলে।

(ii) প্রোটিওলাইটিক (Proteolytic) - যে সব উৎসেচক প্রোটিন জাতীয় খাদ্য পরিপাক করে তাদের তাদের প্রোটিওলাইটিক বলে।

(iii) লাইপোলাইটিক (Lipolytic) - যে সব উৎসেচক স্নেহ বা ফ্যাট জাতীয় খাদ্য পরিপাকে সহায়তা করে, তাদের লাইপোলাইটিক বলে।

কী জাতীয় উৎসেচক

উৎসেচকের নাম

উৎস

সাবসট্রেটের নাম

ক্রিয়ায় ফল

অ্যামাইলোলাইটিক

(কার্বোহাইড্রেট– বিশ্লিষ্টকারী  উৎসেচক)

টায়ালিন

লালাগ্রন্থি

সেদ্ধ শ্বেতসার

মলটোজ

অ্যামাইলেজ

অগ্ন্যাশয় ও আন্ত্রিক গ্রন্থি

শ্বেতসার

মলটোজ

সুক্রেজ

আন্ত্রিক গ্রন্থি

সুক্রোজ

গ্লুকোজ ও ফ্রুক্টোজ

ল্যাকটোজ

আন্ত্রিক গ্রন্থি

ল্যাকটোজ

গ্লুকোজ ও  গ্যালাকটোজ

মলটেজ

লালাগ্রন্থি, অগ্ন্যাশয় ও আন্ত্রিক গ্রন্থি

মলটোজ

গ্লুকোজ

প্রোটিওলাইটিক

(প্রোটিন বিশ্লিষ্টকারী উৎসেচক )

পেপসিন

পাকগ্রন্থি

প্রোটিন

পেপটোন

রেনিন

পাকগ্রন্থি

দুগ্ধ প্রোটিন

কেসিন

ট্রিপসিন

অগ্ন্যাশয়

পেপটোন

পেপটাইড

ইরিপসিন

আন্ত্রিক গ্রন্থি

পেপটাইড

অ্যামাইনো অ্যাসিড

লাইপোলাইটিক

(ফ্যাট বিশ্লিষ্টকারী উৎসেচক )

লাইপেজ

পাকগ্রন্থি, অগ্ন্যাশয় ও আন্ত্রিক গ্রন্থি

ফ্যাট

ফ্যাটি অ্যাসিড ও গ্লিসারল

সংকলন: বিকাশপিডিয়া কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট টিম

2.89655172414
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top