ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

প্রসব পরবর্তী যত্ন

প্রসব পরবর্তী সময়ে কেন মা ও নবজাতকের যত্ন নেওয়া উচিত তা এখানে জানানো হয়েছে।

 

গবেষণা করে দেখা গেছে যে, ৫০ % মায়ের মৃত্যু হয় প্রসব-পরবর্তী সময়ে। সাধারণত, প্রসবের পরের ৪২ দিন(৬ সপ্তাহ) প্রসব - পরবর্তী সময় বলে ধরা হয়। এর মধ্যে প্রথম ৪৮ ঘন্টা ও পরবর্তী প্রথম এক সপ্তাহ মা এবং নবজাতক শিশুর স্বাস্থ্য ও বেঁচে থাকার ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়। এর মধ্যে প্রথম ৪৮ ঘন্টা ও পরবর্তী প্রথম এক সপ্তাহ মা এবং নবজাতক শিশুর স্বাস্থ্য ও বেঁচে থাকার ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়। কেননা, বেশির ভাগ মা ও নবজাতকের প্রাণঘাতী বা প্রায় - প্রাণঘাতী জটিলতা এই সময়েই ঘটে থাকে৷

মাতৃত্ব ও শিশুর স্বাস্থ্য দেখাশোনার সমস্ত বিষয়ের মধ্যে প্রসব, প্রসব - পরবর্তী শুশ্রূষা ও নবজাত শিশুর দেখাশোনার বিষয় সবচেয়ে উপেক্ষিত। ভারতবর্ষে ছ’জন মহিলার মধ্যে মাত্র এক জন প্রসব-পরবর্তী সেবা ও যত্ন পান৷ জাতীয় পরিবার স্বাস্থ্য সমীক্ষার (এনএফএইচএস) তথ্য অনুযায়ী, বাড়িতে প্রসবের ক্ষেত্রে মাত্র ১৭% মহিলার প্রসবের দু’মাসের মধ্যে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়। আবার, বাড়িতে প্রসবের ক্ষেত্রে মাত্র ২% মহিলা প্রসবের দু’দিনের মধ্যে এবং কেবল ৫% মহিলা প্রসবের প্রথম ৭ দিনের মধ্যে প্রসব-পরবর্তী চিকিৎসা পান। প্রসবের পরে চিকিৎসা সংক্রান্ত যে তথ্য ও পরিষেবা পাওয়ার কথা, এমনকী এই অল্প সংখ্যক মহিলার মধ্যেও অনেকেই তার সমস্তটা পান না।

প্রসবের পর একজন মেয়েকে শারীরিক ও মানসিক ভাবে মানিয়ে নিতে হয়, এ জন্য তাঁর অসুবিধার কথা বুঝতে হবে এ জন্য তাঁর অসুবিধার কথা বুঝতে হবে এবং তাঁকে মানসিক সমর্থন দিতে হবে। এই সময়ের শারীরিক অসুবিধাগুলির মধ্যে কয়েকটি হল জরায়ু ও তার আশপাশের তন্তুগুলিতে ক্ষত বা সংক্রমণ, মূত্রনালীর সংক্রমণ, গর্ভাশয়ের সাংঘাতিক স্থানচ্যুতি এবং প্রসব-পরবর্তী মানসিক অসুস্থতা। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব, এই অসুবিধাগুলির নির্ণয় ও চিকিৎসা করা অত্যন্ত জরুরি, কেননা এগুলির মধ্যে কয়েকটির জটিলতা আরও সাংঘাতিক ও প্রাণঘাতী হয়ে উঠতে পারে৷

উৎস : পোর্টাল কন্টেন্ট দল

3.12195121951
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top