হোম / সমাজ কল্যাণ / ওঁরা পথ দেখান / শিশু দত্তক : পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয় স্থানে
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

শিশু দত্তক : পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয় স্থানে

প্রয়োজনীয় পরিকাঠামোর অভাব থাকা সত্ত্বেও শিশু দত্তক নেওয়ার ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গ দেশে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে। এবং এই দত্তক নেওয়ার প্রশ্নে কোনও লিঙ্গ বৈষম্য করা হয়নি।

শিশু দত্তক নেওয়ার জাতীয় তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের স্থান দ্বিতীয় – মহারাষ্ট্রের পরেই। খবরটি নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। কারণ প্রয়োজনীয় পরিকাঠামোর অভাব থাকা সত্ত্বেও পশ্চিমবঙ্গ এই কৃতিত্ব অর্জন করেছে। সংসদে পেশ হওয়া কেন্দ্রীয় দত্তক সংক্রান্ত গবেষণা সংস্থা সেন্ট্রাল অ্যাডপশন রিসার্চ এজেন্সির প্রতিবেদন অনুযায়ী জানুয়ারি ২০১১ থেকে সেপ্টেম্বর ২০১৪ –র মধ্যে এই রাজ্যে ১৪৬৬টি শিশুকে দত্তক নেওয়া হয়েছে। এই একই সময়ে তালিকার শীর্ষে থাকা মহারাষ্ট্রে ৪২০৮টি শিশু দত্তক নেওয়া হয়েছে। তৃতীয় স্থানে থাকা কর্ণাটকে এই সংখ্যা ১৩১৩।

পরিকাঠামোর নিরিখে মহারাষ্ট্র ও পশ্চিবঙ্গের মধ্যে ফারাক বিস্তর। সারা মহারাষ্ট্রে ছড়িয়ে আছে ৬৮টি দত্তক সংস্থা। ওই রাজ্যে মহিলা ও শিশু কল্যাণ দফতরটি সক্রিয় হওয়ার দরুণ রাজ্যের সবক’টি দত্তক সংস্থা যথেষ্ট সংগঠিত। তুলনায় পশ্চিমবঙ্গে মাত্র ৪টি দত্তক সংস্থা অবস্থিত এবং এগুলির প্রত্যেকটি কলকাতায়। অনাথ আশ্রম এবং হাসপাতাল, বিশেষত যেগুলি জেলায় অবস্থিত, সেগুলির সঙ্গে এই দত্তক সংস্থাগুলির যোগাযোগ ব্যবস্থা বিশেষ জোরালো নয়।

পশ্চিমবঙ্গের এই সাফল্যের প্রধান কারণ সম্ভবত দত্তক নেওয়ার প্রশ্নে এই রাজ্যের মানুষ প্রগতিশীল দৃষ্টিভঙ্গি। কিছু কাল আগে অবধি দত্তক নেওয়ার প্রশ্নে যে লজ্জা, সংকোচ ও কলঙ্কের মনোভাব দেখা যেত, তা সারা দেশেই অনেকাংশে কমে এসেছে। পশ্চিমবঙ্গে তা আর নেই বললেই চলে। এই উদার মনোভাবের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরি করা এবং আইনগত খুঁটিনাটি দিকগুলিও এখানে অনেক তাড়াতাড়ি এবং সহজে সম্পূর্ণ করা সম্ভব হচ্ছে। এ ব্যাপারে সরকার ও আদালতগুলিও যথেষ্ট সহযোগী। আর একটি খুব উত্সাহব্যঞ্জক দিক হল, এই রাজ্যে দত্তক নেওয়ার প্রশ্নটি প্রায় পুরোপুরি লিঙ্গ-নিরপেক্ষ।

এপ্রিল ২০১৩ থেকে জুন ২০১৪-এর মধ্যে ২৪৪টি কন্যা সন্তান এবং ১৬৯টি পুত্রসন্তান দত্তক নেওয়া হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। এমন কী শারীরিক সমস্যা আছে এমন শিশু দত্তকের সংখ্যাও নেহাত কম নয়।

দত্তক নেওয়ার ক্ষেত্রে লিঙ্গ বিচার একেবারেই বাঞ্ছনীয় নয়। কিন্তু দুর্ভাগ্য‌ের বিষয় কোথাও কোথাও এ ব্য‌াপারে দুর্নীতির আশ্রয় নেওয়া হয়।

সূত্র : দ্য টেলগ্রাফ, ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৪

2.82926829268
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top