হোম / সমাজ কল্যাণ / সামাজিক কুপ্রথা / সুতিতে প্রশাসনের উদ্যোগে বিয়ে বন্ধ হল নাবালিকার
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

সুতিতে প্রশাসনের উদ্যোগে বিয়ে বন্ধ হল নাবালিকার

নাবালিকার বিয়ে দিতে পারলেন না অভিভাবকরা। সেই বিয়ে আটকালেন সরকারি অফিসাররা।

এক নাবালিকাকে বিয়ে দিচ্ছিলেন তার অভিভাবকরা৷ খবর পেয়ে তড়িঘড়ি সেই বিয়ে রুখলেন সুতি-১ নম্বর ব্লকের সহকারী ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক ও সুতির পুলিশ৷ ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালে সুতির আহিরনে৷ সুতির ১ নম্বর ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক সুবীর দাস জানিয়েছেন, ''এদিন সকালে খবর পাই এক নাবালিকার বিয়ে দিচ্ছেন তার পরিবারের লোকজন৷ দ্রুত পুলিশকে নিয়ে আহিরন বাবুপাড়াতে সেই বাড়িতে যাই৷ সেখানে গিয়ে জানতে পারি মেয়েটির বয়স মাত্র ১২ বছর৷ নাম নিকিতা দাস৷''

আহিরন হেমাঙ্গিনী স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী নিকিতা৷ বাবা স্বপন দাস দিনমজুর৷ বিয়ে হচ্ছিল পাশের গ্রাম গাঙ্গিনের সোনারপুরের বাসিন্দা সুবোধ ভাস্করের ছেলে তারক ভাস্করের সঙ্গে৷ ছেলেটি পেশায় রাজমিস্ত্রি৷ বিডিও পরিবারের সকলকে বুঝিয়ে বলেন, সরকারি নিয়মানুযায়ী মেয়ের বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেওয়া যায় না৷ শেষ পর্যন্ত মেযের বাবা বিয়ে বন্ধ করে দেন৷ মেয়েটির বাবা আমাদের লিখিত মুচলেকা দেন, মেয়ের বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত তিনি বিয়ে দেবেন না৷ বিডিও বলেন, ''আমরা মেয়েটির পরিবারকে বলেছি ওকে আবার স্কুলে ভর্তি করার জন্য৷ ওঁরা আমাদের কথায় রাজি হয়েছেন৷''

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

2.98039215686
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top