অসমীয়া   বাংলা   बोड़ो   डोगरी   ગુજરાતી   ಕನ್ನಡ   كأشُر   कोंकणी   संथाली   মনিপুরি   नेपाली   ଓରିୟା   ਪੰਜਾਬੀ   संस्कृत   தமிழ்  తెలుగు   ردو

মাতৃভাষা দিবস

মাতৃভাষা দিবস

একুশে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের জনগণের গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন। কিন্তু বর্তমানে দেশের সীমানা পেরিয়ে এটি একটি আন্তর্জাতিক দিবসে পরিণত হয়েছে। রফিক ও সালাম, এই দু’টি নাম যেমন ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে আছে তেমনই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের সঙ্গে জড়িয়ে গিয়েছে এই দু’টি নাম। তবে এঁরা ভিন্ন। কানাডার দুই প্রবাসী বাংলাদেশী রফিকুল ইসলাম এবং আবদুস সালাম এই দিনটির বীজ বপন করেছিলেন।

ভ্যানকুভার শহরে বসবাসরত রফিকুল ও আবদুস প্রাথমিক উদ্যোক্তা হিসেবে একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণার আবেদন জানিয়েছিলেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের মহাসচিব কফি আন্নানের কাছে ১৯৯৮ সালে। সে সময় তাঁদের চিঠিটি নজরে আসে মহাসচিবের প্রধান তথ্য কর্মচারী হিসাবে কর্মরত হাসান ফেরদৌসের। রাষ্ট্রসঙ্ঘের অন্য কোনও সদস্য রাষ্ট্রের কাছ থেকে একই ধরনের প্রস্তাব আনার জন্য হাসান চেষ্টা করতে বলেন রফিককে। এর পরেই রফিক তাঁর সহযোদ্ধা সালামকে নিয়ে ‘আ গ্রুপ অফ মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ অফ দ্য ওয়ার্ল্ড’ নামে একটি সংগঠন তৈরি করেন। এতে এক জন ইংরেজভাষী, এক জন জার্মানভাষী, এক জন কয়ান্টোনিজভাষী এবং এক জন কাচ্চিভাষী ছিলেন। এ বার কফি আন্নানের কাছে প্রস্তাব গেল ‘মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ লাভারস অফ দ্য ওয়ার্ল্ড’-এর পক্ষ থেকে। হাসান ফেরদৌসের পরামর্শমতো রফিকরা আলাপ করলেন ইউনেস্কোর ভাষা বিভাগের আনা মারিয়ার সঙ্গে। ২১ ফেব্রুয়ারিকে মাতৃভাষা দিবস করার ব্যাপারে এই আনা মারিয়ার অবদান ভোলার নয়। তিনি রফিকদের পরামর্শ দিলেন প্রস্তাবটি বাংলাদেশ, ভারত, কানাডা, হাঙ্গেরি ও ফিনল্যান্ডের তরফ থেকে আনাতে হবে। শেষ পর্যন্ত ২৩ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস করার প্রস্তাব গেল ২৯টি দেশের তরফে। ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর এক ঐতিহাসিক দিন। ইউনেস্কোর প্যারিস অধিবেশনে সেই প্রস্তাব পাশ হল। সমর্থন জানাল ১৮৮টি দেশ। বিরোধিতা করল না কোনও দেশ, এমনকী পাকিস্তানও নয়। ওই দিন একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয় এবং ২০০০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে দিবসটি রাষ্ট্রসঙ্ঘের সদস্য দেশসমূহে যথাযথ মর্যাদায় পালিত হচ্ছে। ২০১০ সালের ২১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৫তম অধিবেশনে এখন থেকে প্রতি বছর একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসাবে পালন করার প্রস্তাব সর্বসম্মত ভাবে পাশ হয়।

সূত্র : দ্য মেকারস অফ হিস্ট্রি : ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডে, হাসান মাহমুদ



© 2006–2019 C–DAC.All content appearing on the vikaspedia portal is through collaborative effort of vikaspedia and its partners.We encourage you to use and share the content in a respectful and fair manner. Please leave all source links intact and adhere to applicable copyright and intellectual property guidelines and laws.
English to Hindi Transliterate