অসমীয়া   বাংলা   बोड़ो   डोगरी   ગુજરાતી   ಕನ್ನಡ   كأشُر   कोंकणी   संथाली   মনিপুরি   नेपाली   ଓରିୟା   ਪੰਜਾਬੀ   संस्कृत   தமிழ்  తెలుగు   ردو

তরুণ মজুমদার

তরুণ মজুমদার

(জন্ম ১৯৩১)

তরুণ মজুমদার অধুনা বাংলাদেশের বগুড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। কলকাতার স্কটিশচার্চ কলেজ ও কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা করেন। তিনি গত পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে চলচ্চিত্র পরিচালনা করে আসছেন। তিনি তাঁর পরিচালিত চলচ্চিত্রের মাধ্যমে মূলত বাঙালি সমাজ এবং সংস্কৃতিকে তুলে ধরেছেন। তাঁর অনেকগুলি চলচ্চিত্রই সাহিত্য-নির্ভর। তিনি বিমল কর, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাহিত্যকীর্তি বড়পর্দায় তুলে ধরেছেন । তাঁর পরিচালিত চলচ্চিত্রে অনেক সময়েই রবীন্দ্রনাথের গানের ব্যবহার থাকে। তিনি তাঁর সমসাময়িক অন্যান্য চলচ্চিত্রকার যেমন সত্যজিৎ রায়, মৃণাল সেন, তপন সিংহ প্রভৃতি পরিচালকদের মতো সমালোচকদের বিপুল সাড়া না পেলেও নিয়মিত ভাবে বক্স অফিস হিট ছবি নির্মাণ করে চলেছেন।

পরিচালক জীবনের প্রথম কয়েক বছর শচীন মুখার্জি ও দিলীপ মুখার্জিকে ‘যাত্রিক’ নামে যৌথ ভাবে চারটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছিলেন। উত্তম-সুচিত্রাকে নিয়ে যাত্রিক তৈরি করেছিলেন চাওয়া পাওয়া (১৯৫৯)। ১৯৬০-এ যাত্রিক-এর তৈরি স্মৃতি টুকু থাক-এ সুচিত্রার ছিল দ্বৈত ভূমিকা। ১৯৬৩-তে যাত্রিক আরও দু’টি হিট ছবি উপহার দেন – পলাতক ও কাচের স্বর্গ। ১৯৬৫ সাল থেকে তরুণবাবু নিজে সিনেমা পরিচালনা শুরু করেন।

তাঁর একক ভাবে পরিচালিত চলচ্চিত্র

  • আলোর পিপাসা-১৯৬৫
  • একটুকু বাসা-১৯৬৫
  • বালিকা বধূ-১৯৬৭
  • রাহগির-১৯৬৯
  • নিমন্ত্রণ-১৯৭১
  • কুহেলি-১৯৭১
  • শ্রীমান পৃথ্বীরাজ-১৯৭৩
  • ঠগিনী-১৯৭৪
  • ফুলেশ্বরী-১৯৭৪
  • সংসার সীমান্তে-১৯৭৫
  • বালিকা বধূ -১৯৭৬ (হিন্দি)
  • গণদেবতা- ১৯৭৮
  • দাদার কীর্তি-১৯৮০
  • শহর থেকে দূরে- ১৯৮১
  • মেঘমুক্তি-১৯৮১
  • খেলার পুতুল-১৯৮২
  • অরণ্য আমার-১৯৮৪
  • অমর গীতি-১৯৮৪
  • ভালোবাসা ভালোবাসা-১৯৮৫
  • পথভোলা- ১৯৮৬
  • আগমন-১৯৮৮
  • পরশমণি- ১৯৮৮
  • আপন আমার আপন-১৯৯০
  • পথ ও প্রাসাদ-১৯৯১
  • সজনী গো সজনী- ১৯৯১
  • কথা ছিল-১৯৯৪
  • আলো-২০০৩
  • ভালোবাসার আরেক নাম-২০০৫
  • চাঁদের বাড়ি-২০০৭

পুরস্কার

  • গণদেবতা (১৯৭১)- শ্রেষ্ঠ বিনোদনমূলক জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের জন্য জাতীয় পুরস্কার
  • নিমন্ত্রণ(১৯৭২)-শ্রেষ্ঠ বাংলা ছবি হিসেবে জাতীয় পুরস্কার
  • অরণ্য আমার (১৯৮৪)- শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানভিত্তিক ছবির জন্য জাতীয় পুরস্কার
  • বেঙ্গল ফিল্ম জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের তিনটি পুরস্কার।

সূত্র: উইকিপিডিয়া



© 2006–2019 C–DAC.All content appearing on the vikaspedia portal is through collaborative effort of vikaspedia and its partners.We encourage you to use and share the content in a respectful and fair manner. Please leave all source links intact and adhere to applicable copyright and intellectual property guidelines and laws.
English to Hindi Transliterate