অসমীয়া   বাংলা   बोड़ो   डोगरी   ગુજરાતી   ಕನ್ನಡ   كأشُر   कोंकणी   संथाली   মনিপুরি   नेपाली   ଓରିୟା   ਪੰਜਾਬੀ   संस्कृत   தமிழ்  తెలుగు   ردو

জসীমউদ্দীন

জসীম উদ্ দীন (জানুয়ারি ১, ১৯০৩ - মার্চ ১৩, ১৯৭৬) এক জন বিখ্যাত কবি। তিনি বাংলাদেশে 'পল্লী কবি' হিসেবে পরিচিত। তাঁর লেখা কবর কবিতাটি বাংলা সাহিত্যে এক অবিস্মরণীয় অবদান। পুরো নাম জসীম উদ্ দীন মোল্লা হলেও তিনি জসীম উদ্ দীন নামেই পরিচিত। নকশী কাঁথার মাঠ কবির শ্রেষ্ঠ রচনা যা বিভিন্ন ভাষায় অনুদিত হয়েছে।

তিনি ১৯০৩ সনের ১ জানুয়ারি ফরিদপুর জেলার তাম্বুলখানা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার বাড়ি ছিল একই জেলার গোবিন্দপুর গ্রামে। বাবার নাম আনসার উদ্দিন মোল্লা। তিনি পেশায় এক জন স্কুল শিক্ষক ছিলেন। মা আমিনা খাতুন ওরফে রাঙাছুট। জসীম উদ্ দীন ফরিদপুর ওয়েলফেয়ার স্কুল, ও পরবর্তীতে ফরিদপুর জেলা স্কুল থেকে পড়ালেখা করেন। সেখান থেকে তিনি প্রবেশিকা পরীক্ষায় ১৯২১ সনে উত্তীর্ন হন। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ ও এমএ করেন যথাক্রমে ১৯২৯ ও ১৯৩১ সালে। ১৯৩৩ সালে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে দীনেশচন্দ্র সেনের অধীনে রামতনু লাহিড়ী গবেষণা সহকারী পদে যোগ দেন। এর পর ১৯৩৮ সনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগের প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন।

১৯৬৯ সনে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কবিকে সম্মান সূচক ডি লিট উপাধিতে ভূষিত করেন। তিনি ১৩ মার্চ ১৯৭৬ সনে ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন।

পুরস্কার প্রাপ্তি :

* প্রেসিডেন্টস অ্যাওয়ার্ড ফর প্রাইড অফ পারফরমেন্স ১৯৫৮। * একুশে পদক ১৯৭৬। * স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার ১৯৭৮ (মরণোত্তর)। * ১৯৭৪ সনে তিনি বাংলা অ্যাকাডেমি পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করেন। * রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিলিট ডিগ্রি (১৯৬৯)।

কাব্যগ্রন্থ

* রাখালী। (১৯২৭) * নকশী কাঁথার মাঠ। (১৯২৯) * বালুচর। (১৯৩০) * ধানখেত। (১৯৩৩) * সোজন বাদিয়ার ঘাট। (১৯৩৪) * হাসু। (১৯৩৮) * রঙিলা নায়ের মাঝি।(১৯৩৫) * রুপবতি। (১৯৪৬) * মাটির কান্না। (১৯৫১) * এক পয়সার বাঁশী। (১৯৫৬) * সকিনা। (১৯৫৯) * সুচয়নী। (১৯৬১) * ভয়াবহ সেই দিনগুলিতে। (১৯৬২) * মা যে জননী কান্দে। (১৯৬৩) * হলুদ বরণী। (১৯৬৬) * জলে লেখন। (১৯৬৯) * কাফনের মিছিল। (১৯৮৮)

সূত্র: উইকিপিডিয়া



© 2006–2019 C–DAC.All content appearing on the vikaspedia portal is through collaborative effort of vikaspedia and its partners.We encourage you to use and share the content in a respectful and fair manner. Please leave all source links intact and adhere to applicable copyright and intellectual property guidelines and laws.
English to Hindi Transliterate