অসমীয়া   বাংলা   बोड़ो   डोगरी   ગુજરાતી   ಕನ್ನಡ   كأشُر   कोंकणी   संथाली   মনিপুরি   नेपाली   ଓରିୟା   ਪੰਜਾਬੀ   संस्कृत   தமிழ்  తెలుగు   ردو

গোড়ার কথা : পুনর্নবীকরণযোগ্য‌ শক্তি

গোড়ার কথা : পুনর্নবীকরণযোগ্য‌ শক্তি

শক্তির ধারাবাহিক পরিকল্পিত ও ব্য‌াপক ব্য‌বহারের মাধ্য‌মে মানব সভ্য‌তা আজকের জায়গায় পৌঁছেছে। উন্নততর স্বাস্থ্য‌ পরিষেবার সুযোগ কাজে লাগিয়ে মানুষ তার গড় আয়ু অনেকটাই বাড়িয়ে নিতে পেরেছে। উন্নত স্বাস্থ্য‌ পরিষেবার অপরিহার্য অঙ্গ হল নির্ভুল ডায়াগোনিসিসের জন্য‌ ব্য‌বহৃত যন্ত্রপাতি যা সবই বিদ্য‌ুৎচালিত। আধুনিক তথ্য‌প্রযুক্তির যুগে মানুষ প্রতি দিন কোটি কোটি বার্তা ছবি, তথ্য‌ বিনিময় করছেন। এ কাজে ব্য‌বহৃত যন্ত্রগুলিও বিদ্য‌ুৎচালিত। আলোকিত শপিং মল, সেচ ও পানীয়র জন্য‌ প্রয়োজনীয় জল সরবরাহ ব্য‌বস্থা, এটিএম থেকে যখন খুশি টাকা তোলা --- এ সবই বিদ্য‌ুৎশক্তি নির্ভর। জন্মগ্রহণের সঙ্গে সঙ্গে শিশুটিকে তাপ দেওয়ার যান্ত্রিক ব্য‌বস্থা চালু করতে হয়। আবার মৃত্য‌ুর পর মৃতদেহ চুল্লিতে পুড়িয়ে ফেলা হয় ---বিদ্য‌ুতের সাহায্য‌েই। আমাদের দেশে অধিকাংশ মানুষ কাঠ, গোবর, গাছের পাতা জ্বালানি হিসাবে ব্য‌বহার করেন। এতে এক দিকে অরণ্য‌ ধ্বংস হয়, অন্য‌ দিকে পরিবেশ হয়ে ওঠে দূষিত। ভারতের ৩০ শতাংশ পরিবার আজও বিদ্য‌ুৎ থেকে বঞ্চিত। এদের এক তৃতীয়াংশের বাস শহরের বস্তিগুলিতে। আবার দেশের এক বড় অংশে দিনে ১০/১২ ঘণ্টার বেশি বিদ্য‌ুৎ পাওয়া যায় না।

আমাদের দেশে তথা আমাদের রাজ্য‌ে ব্য‌বহৃত বিদ্য‌ুতের বেশির ভাগটাই আসছে কয়লা থেকে। বিদ্য‌ুৎ উৎপাদন, রান্না, ইস্পাত সহ নানা শিল্পের ফারনেসগুলিতে কয়লার ব্য‌বহার রয়েছে। কয়লা এবং পরিবহন শিল্পে ব্য‌বহৃত পেট্রোলিয়ামজাত জ্বালানির দহনে বাতাসে গ্রিন হাউস গ্য‌াস নিঃসরণ বাড়ছে। এর ফলে উত্তপ্ত হচ্ছে পৃথিবী, বদলে যাচ্ছে জলবায়ু। দু’দশক আগে প্রকাশিত আইপিসিসির প্রথম প্রতিবেদনে এই বিষয়গুলি সামনে আসার পর নড়েচড়ে বসে গোটা বিশ্ব। তার পর পেরিয়ে গিয়েছে ২০ বছর। ২০১৪-এর ৩১ মার্চ জাপানের ইয়োকোহামা শহরে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সংস্থা আইপিসিসি তাদের পঞ্চম প্রতিবেদন পেশ করে বলেছে, গ্রিন হাউস গ্য‌াস নির্গমন কমানো না গেলে সমুদ্র তীরবর্তী ভারত, বাংলাদেশ, মলদ্বীপ, শ্রীলঙ্কার কোটি কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। পানীয় জলের সঙ্কট তীব্রতর হবে। ফলে যে কোনও উপায়ে গ্রিন হাউস গ্য‌াস নির্গমণ কমানো দরকার।

সূত্র : পঞ্চায়েতি রাজ, জানুয়ারি ২০১৫



© 2006–2019 C–DAC.All content appearing on the vikaspedia portal is through collaborative effort of vikaspedia and its partners.We encourage you to use and share the content in a respectful and fair manner. Please leave all source links intact and adhere to applicable copyright and intellectual property guidelines and laws.
English to Hindi Transliterate