ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

টমেটো

এখানে শীতকালীন সবজি টমেটোর চাষ এবং তার পোকা ও রোগ নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

জমি ও মাটি

জল নিকাশি ব্যবস্থাযুক্ত বেলে, দো–আঁশ থেকে এঁটেল মাটিতে টমেটোর চাষ করা যায়। মাটির অম্লত্ব ৬–৭-এর মধ্যে হলে সব থেকে উপযোগী হয়।

জাত

উন্নত জাত

জলদি জাত — পুষা রুবি, পুষা আর্লি ডোয়ার্ফ, বেস্ট অফ অল ইত্যাদি।

নাবি জাত — পুষা গৌরব, পাঞ্জাব কেশরী, কৃষ্ণনগর সিলেকশন–২০, এস–১২, এস–১২০, রমা ইত্যাদি।

হাইব্রিড

  • জলদি জাত — রজনী, রশ্মি, সদাবাহার, রুপালী ইত্যাদি।
  • নাবি জাত — নবীন, অবিনাশ–২, মেঘনা, মঙ্গলা, বৈশাখী ইত্যাদি।

বীজ বৃত্তান্ত

বীজ বোনার সময়

  • জলদি জাত — আষাঢ়–শ্রাবণ।
  • নাবী জাত — কার্তিক–পৌষ।

কিছু হাইব্রিড সারা বছর ধরে করা যায়।

বীজের পরিমাণ (হেক্টর প্রতি)

  • উন্নত জাত ৪০০ – ৫০০ গ্রাম।
  • হাইব্রিড জাত ১০০ – ১৫০ গ্রাম।

বীজ শোধন

বীজবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণের জন্য বীজ শোধন প্রয়োজন। বীজ বোনার আগে প্রতি কেজি বীজের জন্য ২৮এম কাঠাডেজিম অথবা ৩ গ্রাম থাইরকম/ক্যাপটান/ম্যানকোজের জাতীয় রাসায়নিক ওষুধ প্রতি লিটার জলে গুলে অন্তত ১০ মিনিট ভিজিয়ে তারপর ছায়ায় শুকিয়ে বীজ বুনতে হবে।

এ ছাড়া জৈবজাত ওষুধ ট্রাইকোডারমা ভিরিডি ৪–৫ গ্রাম প্রতি কেজি বীজের সঙ্গে ভালো ভাবে মিশিয়ে বীজ শোধন করা যায়।

বীজতলায় মাটি শোধন

৩ মি x ১ মি বীজতলার জন্য ২০ মিলি ফরম্যালিন ৪০% ১০ লিটার জলে মিশিয়ে সমান ভাবে ১০ সেমি পর্যন্ত মাটিতে ভিজিয়ে দিতে হবে। তার পর বীজতলা ২ দিন চট বা পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। এর ৩–৪ দিন পর বীজ বোনা যাবে। এ ছাড়াও মাটির পোকা ও পিঁপড়ের জন্য বীজতলায় ৫০ গ্রাম ক্লোরোপাইরিন ৫% গুঁড়ো প্রতিটি বীজতলায় মাটির সঙ্গে ভালো ভাবে মেশাতে হবে। সাথে সাথে বীজ বোনার ৭ দিন আগে প্রতি বর্গমিটারে ৫ গ্রাম কপার অক্সিক্লোরাইড অথবা ২৮এম ক্যাপটাফ প্রতি লিটার জলে মিশিয়ে স্প্রে করতে হবে।

এ ছাড়া জৈবজাত ঔষধি ট্রাইকোডারমা ভিরিডি ১ কেজি প্রতি ১০ কেজি খোলের সঙ্গে মিশিয়ে মাটিতে মেশানো যায়।

ফলন বৃত্তান্ত

বীজতলায় চারা শোধন

চারা বের হওয়ার ৭ দিনের মধ্যে কার্বাডিজম ১ গ্রাম/লিটার অথবা কপার অক্সিক্লোরাইড ৪ গ্রাম/লিটার রাসায়নিক ওষুধ জলে গুলে স্প্রে করতে হবে। এ ছাড়া চারা তোলার ৭–১০ দিন আগে দানাদার জাতীয় রাসায়নিক কীট নাশক যেমন কার্বোকুরুপ ৩% বা কারটাপ ৪% জি ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়। জৈবজাতীয় ওষুধ ট্রাইকোডারমা ভিরিডি ৪–৫ গ্রাম/লিটার জলে গুলে ওই মিশ্রণে শিকড় ভিজিয়ে নিয়ে চারা লাগানো যায়।

চারা লাগানোর সময়

৪–৫ সপ্তাহের চারা উপযুক্ত হয় রোয়ার জন্য।

চারা রোপনের দূরত্ব

জলদি জাতের ক্ষেত্রে ৭৫ সেমি x ৬০ সেমি।

নাবী জাতের ক্ষেত্রে ৭৫ সেমি x ৭৫ সেমি

মূল জমিতে সার প্রয়োগ

উন্নত জাতের জন্য --

  • প্রতি হেক্টর মূল সার -- না : ফ : প : ৫০ : ৫০ কেজি (হেক্টর প্রতি) এবং চাপান সার চারা লাগানোর ২১ দিন ও ৪২ দিন পর ৫ না. ২৫ কেজি।

হাইব্রিড জাতের জন্য --

  • প্রতি হেক্টর মূল সার না : ফ : প : ৯০ : ৯০ কেজি এবং চাপান সার হিসাবে চারা লাগানর ২১ দিন ও ৪২ দিন পর না : ৯০ কেজি।
ফসল তোলার সময়

চারা লাগানোর ৭৫–৮০ দিন পর প্রথম ফসল তোলা যায়।

সম্ভাব্য ফলন (হেক্টর প্রতি)
  • উন্নত জাত – ২৫–৩০ টন।
  • হাইব্রিড জাত – ৬০–৮০ টন।

সূত্র

  1. পোর্টাল কনটেন্ট টিম
2.93181818182
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top