হোম / ই-গভর্ন্যান্স / পশ্চিমবঙ্গে ই-গর্ভন্যান্স উদ্যোগ / পশ্চিমবঙ্গে পয়লা বৈশাখ থেকেই অনলাইনে রেশন কার্ড
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

পশ্চিমবঙ্গে পয়লা বৈশাখ থেকেই অনলাইনে রেশন কার্ড

অনলাইনেই নতুন রেশন কার্ড। পরীক্ষামূলক ভাবে এই ব্যবস্থা চালু করার পর ১ বৈশাখ থেকেই আমজনতার জন্য তা খুলে দেওয়া হবে।

ক্রমেই অনলাইন হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসন। নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে হলে আর সরকারি অফিসে দৌড়োদৌড়ি করতে হবে না। ধরতে হবে না দালালও। অনলাইনেই নতুন রেশন কার্ড পাওয়ার জন্য আবেদন করা যাবে। আগামী মাসে পরীক্ষামূলক ভাবে এই ব্যবস্থা চালু করার পর ১ বৈশাখ থেকেই আমজনতার জন্য তা খুলে দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই নতুন ড্রাইভিং লাইসেন্স বা লাইসেন্স নবীকরণের ক্ষেত্রে অনলাইনে আবেদনপত্র নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য প্রশাসন। সেই মর্মে সফটওয়্যার তৈরির কাজও শুরু হয়েছে। অনলাইনে ডমিসাইল, ইনকাম সার্টিফিকেটের আবেদনও নেওয়ার ব্যবস্থাও অচিরেই চালু হতে চলেছে। অনলাইনেই মিলবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের ডিজিটাল স্বাক্ষর-সহ সার্টিফিকেট। নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন নেওয়ার ব্যবস্থা চালু হলে রেশন কার্ড দেওয়ার ক্ষেত্রে সরকারি স্তরে যে ধরনের দুর্নীতি রয়েছে, তা যেমন বন্ধ হবে, তেমনই সাধারণ মানুষের হয়রানিও কমবে। খাদ্য ও সরবরাহ মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের দাবি, পশ্চিমবঙ্গই প্রথম রাজ্য যেখানে অনলাইনে রেশন কার্ডের আবেদন করার ব্যবস্থা চালু হতে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘এই ব্যবস্থা চালু হওয়ার পর কোনও ব্যক্তি যদি অনলাইনে আবেদন করেন, তা হলে তাঁর বাড়িতে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ইনস্পেক্টর যাবেন এবং তার পর থেকে তিন দিনের মধ্যে আমরা সেই ব্যক্তিকে আধার লিঙ্কড ডিজিটাল রেশন কার্ড দিয়ে দেব। আগামী মাসে আমরা এই ব্যবস্থার মক ট্রায়াল করব। তার আগে বিষয়টি রাজ্য মন্ত্রিসভায় প্রস্তাব আকারে পেশ করা হবে। সব কিছু ঠিক থাকলে ১ বৈশাখ নাগাদ এই ব্যবস্থা জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে।’ চলতি ব্যবস্থায় নতুন রেশন কার্ড পেতে এখন গড়ে এক মাস সময় লাগে। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই অনলাইন ব্যবস্থা চালু হলে রেশন কার্ড পাওয়ার সময় যেমন অনেক কমে আসবে, তেমনই গোটা ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আসবে। দফতরের এক কর্তা জানান, রাজ্যে এখন রেশন কার্ড ডিজিটাইজেশন করার কাজ চলছে। নতুন কার্ডের আবেদনও যদি অনলাইনে হয়, তা হলে আলাদা করে সেই তথ্য ডিজিটাইজড করতে হবে না, আপনাআপনি হয়ে যাবে। রাজ্যে এপিএল, বিপিএল মিলিয়ে সব মিলিয়ে রেশন কার্ডের সংখ্যা প্রায় ৯ কোটি ১৩ লক্ষ। মন্ত্রীর দাবি, এর মধ্যে ৫৭ লক্ষ জাল কার্ড রয়েছে। দফতরের এক পদস্থ কর্তার কথায়, ‘রেশন কার্ড ডিজিটাইজেশন করার মাধ্যমে আমরা জাল কার্ড শনাক্ত করে সেগুলি বাতিল করছি। নতুন যে ডিজিটাল রেশন কার্ড দেওয়া হবে, তাতে যাঁরা আধার নম্বর দিয়েছেন, সেই নম্বর তাঁদের কার্ডে দিয়ে দেওয়া হবে। এর ফলে রেশন কার্ডের মাধ্যমে যাঁরা কম দামে চাল, ডাল, চিনি পান, আমাদের ডেটাবেসের পাশাপাশি ইউআইডিএআই-এর ডেটাবেসেও সেই তথ্য থাকবে। এতে এক জায়গায় বসে আমাদের নজরদারিরও সুবিধা হবে।’ তথ্যপ্রযুক্তি দফতরের অধীন স্টেট ডেটা সেন্টার থেকে রেশন কার্ডের অনলাইন সংক্রান্ত সফটওয়্যারটি পরিচালনা করা হবে। দফতরের এক পদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন, অচিরেই যে ই-ডিস্ট্রিক্ট প্ল্যাটফর্ম আসছে, তাতে নতুন সোসাইটি রেজিস্ট্রেশন থেকে রেজিস্ট্রেশন অফ শপস্ অ্যান্ড এস্টাব্লিশমেন্টে নথিভুক্তকরণও অনলাইনে করা সম্ভব হবে। অনলাইনের মাধ্যমে মিলবে শ্রম দফতরের বিভিন্ন আর্থিক সুযোগসুবিধাও। তবে সে ক্ষেত্রে উপভোক্তাকে অনলাইনে আবেদন করার সময় আইএফএসসি কোড-সহ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর দিতে হবে। এ ছাড়াও জমি সংক্রান্ত ডিডের সার্টিফায়েড কপিও অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করে মিলবে। অনলাইনে এই সমস্ত সুবিধা পাওয়ার জন্য সাধারণ মানুষকে কোনও অতিরিক্ত চার্জ গুণতে হবে না। রাজ্যবাসীর জন্য সুখবর।

সূত্র : কৌশিক প্রধান, এই সময়, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

3.01282051282
Krishna Kamal ghorai Jan 04, 2017 07:32 AM

Phh

নিতাই মোদক Nov 08, 2016 03:52 PM

Biplab Mukherjee Oct 28, 2016 09:57 PM

আমি আমার ফোন নম্বর টি ডিজিটাল রেশন কাড এ যোগ করতে চাই যাহাতে আমি কি কি জিনিস পাব সেটা যাহাতে ম্যাসেজ এর জ?

মোঃ সানটু Oct 09, 2016 06:16 PM

মোঃ সানটু

uttam mahato Sep 20, 2016 03:18 PM

আমি কোলকাতায় বিয়ে কোরেছি,সমস্যা এটাই যে তাদের বাড়ির কারো রেশন কাড নেই,যার জন্য আমাদের এখানে তার নামে কোনো ভাবেই রেশন কাড বেরকরানো যাচ্ছে না, তার ভোটার কাড আছে আর আধার কাড ওআছে এবং hs পাস, তারপরেও কোনো ভাবেও বের করাতে পারছি না, আমাদের এখান কার ডিলার বোলছে ওখান কার লিখিত নিয়ে আসার জন্য,কিন্তুওখান কার ফুড অফিসে গেলে তারাবোলছে কারো রেশন কাড নেই বোলে কোনোলিখিত দেওয়া সম্ভব নয়, তাই আমার মনে হয় অনলাইনের কাজটা চালু হোলে হয়তো এটা করা সম্ভব হোতে পারে, তাছাড়া এই বিষয়ে যোদি কেউ আমায় সাহায্য কোরতে পারেন তাহোলে এই নাম্বারে যোগাযোগ কোরুন plz 86*****62vodafone.

মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top