হোম / স্বাস্থ্য / জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী
ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী

জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী ।

তামাকের ব্যবহার ক্যান্সার, ফুসফুসের  ও কার্ডিওভাসকুলার (হৃৎপিণ্ড-রক্তনালী সংক্রান্ত) রোগের মত দুরারোগ্য ব্যাধির কারণ।  ভারতবর্ষ তামাক উৎপাদন ও বিক্রীতে  পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ।  সিগারেট, বিড়ি, সিগারের মত ধোঁয়া উৎপাদন করতে এমন সব সামগ্রী ছাড়াও আমাদের দেশে অনেক প্রকারের নির্ধুম তামাকজাত নেশার দ্রব্য রয়েছে।

"সিগারেট ও অন্যান্য তামাকজাতীয় দ্রব্য (বিজ্ঞাপনে নিষেধ ও ব্যবসায়িক নীতি, উৎপাদন ও সরবরাহ) আইন ২০১৩" নামক আইনের মাধ্যমে ভারত সরকার জাতীয় তামাক-নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী কার্যকরী করেছে।  ভারতবর্ষও তামাক নিয়ন্ত্রণে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রথাগত ফ্রেমওয়ার্ক (ডব্লু এইচ ও -এফ  সি টি সি)-কে অনুমোদন করেছে।

এছাড়া, তামাক নিয়ন্ত্রণের আইনের কার্যকরী প্রয়োগকে  সহজতর করতে ও তামাক সেবনের অপকারিতা সম্পর্কিত জনসমাজে আরো বড়  মাপের সচেতনতা গড়ে তুলতে ২০০৭-২০০৮ সালে ভারত সরকারের পরিবার ও কল্যাণ মন্ত্রক 'জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী (এন টি পি সি)' নামক কর্মসূচী গড়ে তোলে যা ২১টি রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল জুড়ে এই কর্মসূচী চালায়।

লক্ষ্য

  • তামাক সেবনের অপকারিতা ও তামাক নিয়ন্ত্রণের আইন সম্পর্কে আরো বেশী সচেতনতা গড়ে তুলতে।
  • তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের কার্যকরী প্রয়োগকে সহজতর করে তুলতে।
  • তামাক সেবন কমানো ও মৃত্যু কমানো

তামাক সেবন  নিয়ন্ত্রণ করার পরিকল্পনাগুলো হল নিম্নরূপ

  1. প্রশিক্ষণ ও সক্ষমতা
  2. আইইসি কার্যকলাপ
  3. তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন পর্যবেক্ষণ ও প্রতিবেদন
  4. ক্ষেত্র-সমীক্ষা ও নজরদারী

 

আরো জানতে ক্লিক করুন

 

তথ্য সুত্রঃ ভারত সরকারের 'স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়

2.78947368421
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
Back to top