হোম / স্বাস্থ্য / বিশেষজ্ঞদের মতামত / কেন খাবেন কমলা রঙের খাবার?
ভাগ করে নিন

কেন খাবেন কমলা রঙের খাবার?

পুষ্টিবিদরা বলে থাকেন রঙিন ফলমূল খাওয়ার কথা। আবার রূপবিশেষজ্ঞরাও একই পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এর কারণও অনেক। এই যেমন ধরুন, কমলা রংয়ের কমলা,নামেই যার পরিচয়, অর্থাৎ কমলালেবুতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন।

পুষ্টিবিদরা বলে থাকেন রঙিন ফলমূল খাওয়ার কথা। আবার রূপবিশেষজ্ঞরাও একই পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এর কারণও অনেক। এই যেমন ধরুন, কমলা রংয়ের কমলা,নামেই যার পরিচয়, অর্থাৎ কমলালেবুতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন। আর তা শুধু কমলার রস নয়, কমলার ভেতরের সাদা অংশটিতেও থাকে যথেষ্ট আঁশ, যা খুবই উপকারী।কেন খাবেন কমলা রঙের খাবার?

এতে আরো পাওয়া যায় প্রচুর পরিমাণে অ্যাসিড, যা দাঁতকে ঝকঝকে ও উজ্জ্বল করে। তাছাড়া ওজন কমাতে ও সুন্দর থাকতেও কমলালেবুর মধ্যে থাকা ভিটামিন ‘সি’-র জুড়ি নেই। রংয়ে রঙিন আম আম পেকে গেলে কমলা রং ধারণ করে। আম যে নানা রং ও স্বাদের হয় সেটা নতুন করে মনে করিয়ে দেবার প্রয়োজন নেই। আমে রয়েছে বিভিন্ন ভিটামিন, মিনারেল, বিটা ক্যারোটিন, ক্যালসিয়াম, আয়রনসহ নানা প্রয়োজনীয় উপাদান। আমে থাকা আঁশ কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করা ছাড়াও হৃদপিণ্ডের রোগ প্রতিরোধেও সহায়তা করে।

কচকচে গাজর সহজলভ্য কমলা রঙের গাজরে রয়েছে ভিটামিন ‘এ’, ‘কে’, ‘সি’, প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, বিটা ক্যারোটিন ও পটাসিয়াম। গাজরের বিটা ক্যারোটিন ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় এবং চোখের স্বাস্থ্য রক্ষা করে। গাজর কাঁচা এবং রান্না করে খাওয়া যায়। পেঁপে এদেশের প্রায় সব জায়গাতে পাওয়া যায় পেঁপে। সবজি হিসেবে কাঁচা অবস্থায় খাওয়া যায় এবং ফল হিসেবে পাঁকা খাওয়া হয়। মিষ্টি কমলা রঙের পাঁকা পেপে খেলে মুখে রুচি বাড়ে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

পেঁপে প্রায় সারা বছরই পাওয়া যায়। পেঁপের পুষ্টিগুণের কারণে এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করে। টসটসে টমেটো টমেটো হয়ে থাকে নানা রঙের। রসালো টকটকে টমেটোতে রয়েছে বিভিন্ন ভিটামিন ও মিনারেল। ক্যালোরি কম থাকার কারণে স্বাস্থ্য সচেতনদের কাছে টমেটো খুবই প্রিয়। এছাড়া টমেটোতে থাকা লাইকোপেন ক্যানসার প্রতিরোধেও সাহায্য করে থাকে।

সুত্র: বিকাশপিডিয়া টীম, পশ্চিমবঙ্গ

3.0
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top