ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

জিনতত্ত্ব এবং ন্যানোপ্রযুক্তির ব্যবহার

এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে জিনতত্ত্ব এবং ন্যানোপ্রযুক্তি ব্যবহার করেছেন গবেষকেরা।

বছরখানেক আগে ধরা পড়ে রোগটা। যত দিন যাচ্ছে, ততই যেন কমছে বুকের ধুকপুকুনি। চিকিৎসকেরা পরীক্ষা করে জানান, উত্তর কলকাতার ওই বাসিন্দার হৃৎপিণ্ডের ভিতরে থাকা এক ধরনের কোষ (কার্ডিও মায়োসাইট) ধীরে ধীরে অকেজো হয়ে পড়ায় এই অবস্থা। এই রোগ সারানোর কোনও অস্ত্রোপচার নেই। চিকিৎসকদের ভরসা তাই ওষুধেই। রোগের নাম কার্ডিও মায়োপ্যাথি

কিন্তু ওষুধ খেলেও যে ফল মিলবে, তা কিন্তু নয়। রোগটা কিছুটা ঠেকিয়ে রাখা যায়। তবে হৃদরোগের চিকিৎসকদের অনেকেই বলছেন, সেই ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় অকেজো হয়ে পড়তে পারে কিডনি, লিভার। তাই রোগটা নিয়ে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের দুশ্চিন্তার শেষ নেই! তবে আশার আলো দেখিয়েছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিজ্ঞান বিভাগ এবং কেন্দ্রীয় সরকারের সংস্থা ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কলেরা অ্যান্ড এন্টেরিক ডিজিজেস’-এর একটি যৌথ গবেষণা। তাতে ‘ড্রোন’ প্রযুক্তির ব্যবহার করেছেন বিজ্ঞানীরা। ওই উড়ুক্কু যানে করে ওষুধ পৌঁছে যাবে শরীরের নির্দিষ্ট স্থানে। সারিয়ে তুলবে অসুখ। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ঘটবে না অন্য কোনও অঙ্গে

 

কী ভাবে? ওই যৌথ গবেষণার প্রধান কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর সাগরতীর্থ সরকারের দাবি, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই এর চিকিৎসা সম্ভব। এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে জিনতত্ত্ব এবং ন্যানোপ্রযুক্তি ব্যবহার করেছেন গবেষকেরা। কার্ডিয়াক মায়োপ্যাথির চিকিৎসায় যে সব ওষুধ ব্যবহার করা হয়, তারা রক্তের সঙ্গে মিশেই পৌঁছে যায় অন্য অঙ্গে। সেই অঙ্গে বিরূপ প্রভাব ফেলে ওষুধ। জিনতত্ত্ব এবং ন্যানোপ্রযুক্তির সাহায্যে কার্ডিও মায়োপ্যাথির ওষুধ সরাসরি হৃৎপিণ্ডে পৌঁছে দেওয়ার উপায় তাঁরা উদ্ভাবন করেছেন বলে গবেষকদের দাবি। তাতে ওষুধটি আর রক্তে মিশবে না। তাই অন্য অঙ্গের কাজকর্ম প্রভাবিত হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে দাবি করেছেন তাঁরা। সাগরতীর্থবাবুদের এই গবেষণাপত্রটি ‘জার্নাল অব কন্ট্রোলড রিলিজ’ নামে গবেষণা পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে

ওই গবেষক দলের সদস্যরা বলছেন, ‘ড্রোন’ বা দূর নিয়ন্ত্রিত উড়ুক্কু যান ব্যবহার করে যে ভাবে সেনারা শত্রুঘাঁটিতে বোমা ফেলেন, ক্ষেত্রেও অনেকটা একই কায়দায় ওষুধ পৌঁছবে হৃৎপিণ্ডের ভিতরে

সূত্র : কুন্তক চট্টোপাধ্যায়, আনন্দবাজার পত্রিকা, ৫ এপ্রিল ২০১৫

 

3.00917431193
মন্তব্য যোগ করুন

(ওপরের বিষয়বস্তুটি সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য / পরামর্শ থাকে, তাহলে দয়া করে আমাদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করুন).

Enter the word
ন্যাভিগেশন
Back to top