ভাগ করে নিন
ভিউজ্
  • অবস্থা সম্পাদনার জন্য উন্মুক্ত

ঐতিহাসিক স্থান

শুধু প্রাকৃতিক বৈচিত্র্যই নই, পশ্চিমবঙ্গের নানা প্রান্তে ইতিহাসও ছড়িয়ে রয়েছে মণিমুক্তোর মতো। এখানে এমনই কিছু উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক নিদর্শনের পরিচয়।

কোচবিহার
খেন রাজাদের উত্তরসূরি কোচ রাজাদের করদ রাজ্য কোচবিহার ১৯৪৯-এ ভারতভুক্ত হয়ে পশ্চিমবঙ্গের একটি জেলার মর্যাদা পায়। ১৫২২-এ বিশ্ব সিংহের হাতে স্বাধীন কোচবিহার রাজ্যের পত্তন। তাই ঐতিহ্য এই কোচবিহারের অঙ্গপ্রত্যঙ্গে জড়িয়ে।
মালদহ
এক সময়ে বাংলার রাজধানী ছিল গৌড়। গৌড় ও পাণ্ডুয়ার ধ্বংসাবশেষ আজও পর্যটকদের আকর্ষণ করে।
মুর্শিদাবাদ
সুবে বাংলার সাবেক রাজধানী লালবাগ আর ব্রিটিশের রাজধানী শহর বহরমপুর। মহম্মদী বেগের হাতে নিহত সিরাজের আর্তনাদ আজও ভারাক্রান্ত করে তোলে বাংলা-বিহার-ওড়িশার রাজধানী মুর্শিদাবাদ।
বিষ্ণুপুর
আজ কিংবদন্তির গাথা মল্লরাজবংশ। তাঁদেরই কীর্তিকলাপ, ললিতকলা, টেরাকোটায় সমৃদ্ধ প্রাচীন বাংলার নান্দনিক মন্দির স্থাপত্য পর্যটন মানচিত্রে বিষ্ণুপুরকে আজ অনন্য করে তুলেছে।
ব্যান্ডেল চার্চ
ইতিহাস সর্বাঙ্গে জড়িয়ে আছে ব্যান্ডেল চার্চের গায়ে। সে ইতিহাস ৪০০ বছরেরও বেশি।
চন্দ্রকোনা-গড়বেতা
যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোনা-গড়বেতা।
ন্যাভিগেশন
Back to top